Monday, July 22, 2024
দেশ

বকরি ঈদে গরু, উট কুরবানিতে নিষেধাজ্ঞা উত্তরপ্রদেশে

লখনউ: ঈদ মুসলিম সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। ঈদ-উল-ফিতরের পর এবার ঈদ-অল-আদাহ অর্থাৎ কুরবানির ঈদ। একে বকরি ঈদও বলে। মুসলিম লুনার ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ধু অল-হিজ্জা মাসের দশম দিনে পালিত হয় Eid al Adha অর্থাৎ কুরবানির ঈদ। ২১ জুলাই, বুধবার বকরি ঈদ। তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে গত বছরের মতো এবারের বকরি ঈদেও আনন্দে কিছুটা হলেও ভাটা পড়েছে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার উত্তরপ্রদেশ সরকার বকরি ইদে গরু, উট জবাইয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। সোমবার জারি করা নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, একটি জায়গায় ৫০ জনের ওপর জমায়েত নিষিদ্ধ। বিজ্ঞপ্তিতে জন সমক্ষে পশু কুরবানি ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ জানান, পুলিশকে কড়া নজর রাখতে বলা হয়েছে বকরি ঈদে পশু যেন কুরবানি দেওয়া না হয়। তবে নির্দিষ্ট স্থান আর ব্যক্তিগত জায়গায় গরু, উট ব্যতিত ছাগল, ভেড়া অথবা অন্যান্য পশু কুরবানি দেওয়া যাবে। জন সমক্ষে কুরবানি দেওয়া যাবে। উত্তরপ্রদেশে গরু-বাছুর, উটের কুরবানি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। এই আইন অমান্য করলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে, ইসলামিক সেন্টার অফ ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান মৌলানা খালিদ রাশিদ ফিরিঙ্গির আবেদন, কুরবানির ছবি কিংবা ভিডিও যেন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা না হয়। রাস্তাঘাট, প্রকাশ্যে যেন কুরবানি না দেওয়া হয়। করোনা পরিস্থিতিতে মানুষকে সচেতন থাকতে হবে, কোনওভাবেই যেন এই মারণ সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে।

খালিদ রাশিদ আরও বলেন, মসজিদে যত জন প্রবেশের অনুমতি রয়েছে, ঠিক ততজনই যেন মসজিদে ঢুকে নামাজ পড়ে। এর বেশি যেন কেউ মসজিদে প্রবেশ না করে। সরকারি আইন মেনেই উৎসব পালন করতে হবে।