Monday, July 22, 2024
দেশ

মমতা মানসিক ভারসাম্যহীন, হিন্দুধর্ম ছেড়ে দিচ্ছেন না কেন তিনি: যশবন্ত সিং

জয়পুর: গণপিটুনির ঘটনায় বিজেপি ও আরএসএস দেশে ‘তালিবানি হিন্দুত্ব ও সাম্প্রদায়িকতার আবহাওয়া’ তৈরি করতে চাইছে বলে অভিযোগ করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার পালটা কড়া আক্রমণের মুখে পড়তে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়য়কে। তাঁকে মানসিক ভারসাম্যহীন বলে কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা তথা রাজস্থানের শ্রমমন্ত্রী যশবন্ত সিং যাদব। তিনি বলেন, মমতার উচিত হিন্দুধর্ম পরিত্যাগ করা।

যশবন্ত সিংহ অভিযোগ করেন, মমতা ‘সব হিন্দু সংগঠন সন্ত্রাসবাদী’ বলে ‘নির্লজ্জ মন্তব্য’ করেছেন। তিনি বলেন, তাহলে ওঁনার উচিত হিন্দু ধর্ম ছেড়ে দেওয়া। ওনার মানসিক অবস্থা ভালো নেই। ওঁনার জ্ঞানগম্যি নেই, দেশকে ভালোবাসেন না। উনি বলেছেন, সব হিন্দু সংগঠন চরমপন্থী। তাহলে তিনি কেন হিন্দু ধর্ম ছেড়ে দেন না? মমতাজির (মমতা বন্দ্যোপাধ্য়য়) মানসিক অবস্থা স্থিতিশীল নয়।

গরু তাদের কাছে মায়ের সমান, তাই হিন্দুরা গোপাচার, গোহত্যা কখনই সহ্য করবে না, নিজের আগের এই মন্তব্যে অনড় থাকেন শ্রমমন্ত্রী যশবন্ত। যদিও গোরক্ষার নামে পিটিয়ে মারার ঘটনা তিনি সমর্থন করেন না বলে জানিয়েছেন তিনি। যশবন্ত সিং যাদব বলেন, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করা থেকে বিরত থাকতে সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত।  আমরা এখনও বলছি যে, পিটিয়ে মারার ঘটনায় মানুষ নিজের হাতে আইন তুলে নিচ্ছে। কাউকে মারা বেআইনি এবং এটা ঠিক নয়। কিন্তু, গরু হিন্দুদের জন্য একটি প্রতীক এবং এই অবৈধ ব্যবসা বন্ধ না হলে এই এই ধরনের ঘটনা অব্যাহত থাকবে। কোনও সরকার বা কোনও সংগঠন এটা বন্ধ করতে পারবে না।

প্রসঙ্গত, গত ২০ জুলাই রাতে রাকবরকে পেটায় একদল দুষ্কৃতী। তাকে রামগড়ের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তাররা মৃত অবস্থায় নিয়ে আসা হয়েছে বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।