Tuesday, June 18, 2024
বিনোদন

বাংলাদেশের ঘটনা নিয়ে চুপ কেন বাংলার বুদ্ধিজীবীরা? প্রশ্ন রুদ্রনীলের

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: বাংলাদেশে হিন্দুদের উপর হামলার ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে ওপার বাংলার পাশাপাশি এপার বাংলাও। প্রতিবাদে সরব হয়েছে টলিউডের একাংশ। এবার সরব হলেন অভিনেতা তথা রাজনীতিবিদ রুদ্রনীল ঘোষ (Rudranil Ghosh)। সবর হয়েই বাংলার বুদ্ধিজীবীদের নীরবতা নিয়ে কটাক্ষ করেছেন তিনি।

ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেছেন, ”শুভ লক্ষ্মী পুজো। দুর্গাপূজার সময় থেকে হিন্দুধর্মের মানুষদের ওপর যে ধারাবাহিক মানসিক ও শারিরীক নিপীড়ন নেমে এসেছিল, তাতে বাংলাদেশের হিন্দুরা আজ লক্ষ্মী পুজো কতটা পালন করতে পারছেন তা জানি না!!যদিও বাংলাদেশের মাননীয়া প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশকর্তারা দেশজুড়ে ঘটা এই ঘটনাকে পরিকল্পিত উগ্র মৌলাবাদী হামলা বলেছেন এবং তাঁরা কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছেন বলেও জানতে পেরেছি।ধন্যবাদ তাদের। শুধুমাত্র বাংলাদেশের শুভ বুদ্ধিসম্পন্ন মানুষ নয়, বিশ্বজুড়ে বাঙালীরা এই ঘৃণ্য পরিকল্পিত ঘটনার প্রতিবাদ করেছেন, পথে নেমেছেন, কথা বলছেন।

কিন্তু, আশ্চর্যের বিষয় হল, আমাদের এপার বাংলার অধিকাংশ শিল্পী লেখক বুদ্ধিজীবীরা মুখে কুলুপ এঁটেছেন এ ব্যাপারে!! টুঁ শব্দটি করছেন না!! যাঁরা যে কোন একটা ছোট্ট বিষয়েও পান থেকে চুন খসলেই হুলুস্থুল করে দেন, সেই তাঁরাই হয় এই বড় ব্যাপারটা এড়িয়ে যাচ্ছেন, নয় চুপ করে যাচ্ছেন, কিম্বা “এসব ছোট্ট বিচ্ছিন্ন ঘটনা, ওদেশের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার” – এসব বলছেন! কেন? অনেকের মনে প্রশ্ন জাগছে, এনারা কি ইসলামের নামে করা এই ঘৃণ্য মৌলবাদকে সমর্থন করছেন?? নাকি এপার বাংলার বুদ্ধিজীবী-বিশিষ্টজনেরা যাঁরা অধিকাংশই হিন্দু, তাঁরা নিজের ধর্মের মানুষদের মানুষ মনে করেন না??
নাকি অন্য কোন বড় রাজনৈতিক সমীকরণের কাছে মাথা নুইয়ে দিয়েছেন এপার বাংলায়,তাই অনিচ্ছাতেও চুপ??!! এ প্রশ্নের উত্তর সারা বাংলার মানুষ খুঁজছে।

অন্য ধর্মের মানুষের সামান্য কোন ক্ষতিতে এঁরা কেঁদে ভাসিয়ে দেন মানবতা শেষ মানবতা শেষ বলে। আর নিজের ধর্মের মানুষের চরম ক্ষতি হলে এনারাই সেই শুখনো চোখটা সানগ্লাসে ঢেকে নেন! হায় রে এদের ধর্মনিরপেক্ষতা!! আমার বিশ্বাস, যে দিন নিজের ঘরে-চাদরে কিম্বা পৈতেতে- পদবীতে টান পড়বে, সেদিন সমস্ত “সেকুলার” এপার বাংলায় অনুদানের মোমবাতি হাতে নিয়ে প্রতিবাদ মিছিলে পথে নামবেন ভুল শুধরে নিতে। ধন্যবাদ আমার ওপার বাংলার সমস্ত সুস্থ চেতনার মানুষজনকে এই উগ্র মৌলবাদী আক্রোশের বিরুদ্ধে একজোট হবার জন্য। প্রিয় বাংলাদেশকে আরো সুন্দর বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য।”

Rudranil Ghosh snubs intellectual for their silence over Bangladesh issue

Also Read: