Thursday, July 18, 2024
Latestআন্তর্জাতিক

আফগানিস্তানে নারীদের প্রকাশ্যে পাথর ছুড়ে হত্যার নিয়ম ফের চালু তালিবানের

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: আফগানিস্তানে ফের অন্ধকার যুগের সূচনা হতে চলেছে। ক্ষমতা দখলের পর থেকে নারীদের বিরুদ্ধে একের পর এক বিধিনিষেধ আরোপ করেই চলছে তালিবান। এবার ‘ব্যভিচারের’ জন্য প্রকাশ্যে পাথর ছুড়ে হত্যার নিয়ম ফের চালু করলো তালিবান। মানবাধিকার সংগঠনগুলোর দাবি, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নীরবতার কারণে তালিবান ফের এই নিকৃষ্ট আইন ফিরিয়ে এনেছে।

তালিবানের সর্বোচ্চ নেতা হিবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা বলেন, তারা আফগানিস্তানে শরিয়াহ আইন কার্যকর করা শুরু করবেন। এর আওতায় ‘ব্যভিচারের’ জন্য নারীদের প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত এবং পাথর ছুড়ে হত্যা করা হবে।

তালিবান নিয়ন্ত্রিত বেতার-টেলিভিশন আফগানিস্তানে হিবাতুল্লাহকে বলেন, ‘আমরা নারীদের বেত্রাঘাত করব। ব্যভিচারের জন্য আমরা তাঁদের প্রকাশ্যে পাথর মেরে হত্যা করবো।’

হিবাতুল্লাহ আরও বলেন, ‘নারী অধিকার সংগঠনগুলো হয়তো এটিকে নারী অধিকারের লঙ্ঘন বলতে পারেন। কিন্তু তাঁরা আমাদের গণতান্ত্রিক নীতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক কর্মকাণ্ড করেছে। এই পদক্ষেপকে পশ্চিমা প্রভাবের বিরুদ্ধে তালিবানের সংগ্রামের ধারাবাহিকতা। কাবুল দখলের মধ্য দিয়ে তালিবানের কাজ শেষ হয়নি, এটি মাত্র শুরু।’

আফগানিস্তানের নারী অধিকার সংগঠনগুলো মনে করেছে, দেশের ১ কোটি ৪০ লাখ নারী ও মেয়ের সুরক্ষা ও অধিকার হিসেবে অবশিষ্ট যতটুকু ছিল, তাও এবার বিলুপ্তির পথে।

আফগানিস্তানের মানবাধিকার সংগঠন ওমেনস উইনডো অব হোপ-এর প্রধান আইনজীবী সাফিয়া আরেফি বলেন, এই ঘোষণার অর্থ আফগান নারীদের ১৯৯০-এর দশকে তালিবান শাসনের অন্ধকারতম দিনে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া। দ্য গার্ডিয়ান