Friday, May 24, 2024
আন্তর্জাতিকসম্পাদকীয়

বাংলাদেশের শ্রীমঙ্গল শহরের শ্রী শ্রী জগন্নাথদেবের আখড়া

সংগ্রাম দত্ত: প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বলে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলা শহরের প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী সনাতন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের আখড়া শ্রীমঙ্গল তৎপার্শ্ববর্তী অঞ্চলে সনাতন ধর্মীয় ভাব প্রচারে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখে আসছে।

প্রায় শতাধিক বছর পূর্বে শ্রীমঙ্গল উপজেলার দক্ষিণ রূপসপুর নিবাসী প্রয়াত বাশীনাথ পাল, ব্রজনাথ পাল ও মথুর চন্দ্র পাল শ্রীমঙ্গল শহরের ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন সনাতন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের আখড়ার প্রতিষ্ঠাকল্পে শ্রীমঙ্গল উপজেলা শহরে হবিগঞ্জ রোডের ৪৬ শতক ভূমি সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের এ মন্দিরের জন্য দেবোত্তর করে দেন। এ ভূমি মন্দিরের নামে ব্যবহারের জন্য দেবোত্তর করে দিলে শ্রীমঙ্গলের শহরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সমাজ হিতৈষী ধর্মানুরাগী ব্যক্তিত্ব প্রয়াত রাধানাথ দেব চৌধুরী ওই জায়গায় জগন্নাথ দেবের একটি মন্দির নির্মাণ করে দেন। অত:পর জগন্নাথ দেবের আখড়া পূর্ণপ্রতিষ্ঠা লাভ করে।

এছাড়া শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভূনবীর ইউনিয়নের ভীমসি গ্রামের প্রয়াত ব্রজনাথ দাস চৌধুরী শ্রীমঙ্গলের রামনগর গ্রামে মোট ৯ কেদার ধানি জমি শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেব আখড়ার বিগ্রহ সেবা পূজার ব্যয় পরিচালনার জন্য দান করেন। আখড়া মন্দিরের বিগত তিন বারের কার্য্য নির্বাহী কমিটির সভাপতি অজয় কুমার দেব জানান মন্দির পরিচালনা কমিটি ও স্থানীয় পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের আখড়ায় শ্রীকৃষ্ণের ঝুলনযাত্রা অনুষ্ঠান, শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা অনুষ্ঠান, শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী, কার্তিক মাসে নিয়ম সেবা সারা মাস সন্ধ্যায় ও ভোরে সংকীর্তন ভোগরাগ ও ভক্তদের মধ্যে প্রসাদ বিতরণ, প্রতি বুধবার ভাগবত সংঘ কর্তৃক শ্রীমদ্ভাগবদপাঠ, গীতাপীঠ পারমাথিক পরিবার কর্তৃক বার্ষিক গীতা উৎসব, শ্রী শ্রী জগন্নাথ সেবা সংঘের তরুণরা প্রতিদিন সন্ধ্যায় শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের নিত্য সেবায় অংশ হিসেবে আরতি কীর্তন করে থাকেন।