Friday, May 24, 2024
রাজ্য​

এত ভিড় দেখে বুঝলাম কেন দিদির হিংসা হচ্ছে: মোদী

ঠাকুরনগর: ভোটের আগেই বাংলায় আসলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শনিবার সকালে কলকাতা বিমানবন্দরে পৌঁছোন মোদী। এরপর সেখান থেকেই বায়ুসেনার চপারে চেপে ঠাকুরনগর পৌঁছন তিনি। বড়মার সঙ্গে দেখা করেই সভা শুরু করেন মোদী। এত ভিড় দেখে আপ্লুত প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনাদের দেখে বুঝতে পারছি যে কেন দিদির হিংসা হচ্ছে।’

বাংলায় ভাষণ শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিবেকানন্দ, রামকৃষ্ণ, নেতাজি, নজরুল, রবীন্দ্রনাথ, শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের মাটিকে আমার প্রণাম। ঠাকুরবাড়িতে এসে আমি গর্বিত। তৃণমূলকে উদ্দেশ্য করে মোদী বলেন, নাগরিকত্ব বিলে সমর্থন করুন। এইসব লোকদের ভারত ছাড়া আর কোনও জায়গা নেইল এদের কোনও অপরাধ নেই। দেশকে ভেঙে দেশ স্বাধীন করা হয়েছিল। কিন্তু সাম্প্রদায়িক অত্যাচারে পাকিস্তান, বাংলাদেশ ছেড়ে আসতে হয়েছে হিন্দু, শিখ, জৈনদের।

মোদী বলেন, আপনাদের উৎসাহ, ভালোবাসার কাছে আজকের ময়দান ছোট হয়েছে, জায়গা কম পড়েছে। এই দৃশ্য দেখার পর আমি বুঝতে পারছি যে কেন দিদির হিংসা হচ্ছে। আপনারা যে আমাকে আশীর্বাদ দিতে এসেছেন। তার জন্য আপনাদেরকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই।

মোদী বলেন, আমরা নাগরিকত্বের আইন এনেছি, তৃণমূল কংগ্রেস আপনারা সমর্থন করুন। শেষ হবে দালাল রাজ। মোদী দাবি করেন, কৃষকদের নিয়ে আমরা রাজনীতি করি না। এতদিন কংগ্রেসের কৃষক নীতি ছিল, এই নীতিকে সমর্থন করত তৃণমূল কংগ্রেস সরকার। কৃষকদের ঋণ মকুব নিয়ে রাজনীতি হয়েছে। কৃষকদের দুর্বলতার সুযোগ নিয়েছে কিছু স্বার্থপর দল।

প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগ, স্বাধীনতার পরেও গ্রামোন্নয়নে দিকে নজর দেওয়া হয়নি। তবে গ্রামোন্নয়নে নজর দিচ্ছে বিজেপি সরকার। এবার কোনও সিন্ডিকেট ট্যাক্স নয় সোজা ব্যাঙ্কে টাকা যাবে বলেও ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।