Tuesday, June 18, 2024
দেশ

‘দেশের সেরা নেতা নরেন্দ্র মোদী’, শিবসেনার প্রশংসায় তোলপাড় রাজনৈতিক মহল

নয়াদিল্লি: মহারাষ্ট্রে শিবসেনা, এনসিপি, কংগ্রেসের মহাবিকাশ আঘাড়ি জোট সরকার মেয়াদ পূর্ণ করতে পারবে তো? প্রাক্তন জোট সঙ্গী শিবসেনার সঙ্গে কি দূরত্ব কমছে বিজেপির? ফের কি কাছাকাছি আসছে শিবসেনা আর বিজেপি? মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাক্ষাতের পরই এই জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। এরপরে শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউতের মন্তব্যে জল্পনা আরও তীব্র হয়েছে।

বৃহস্পতিবার শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত বলেন, নরেন্দ্র মোদী হলেন দেশের ও তাঁর দলেরও সর্বোচ্চ নেতা। তার এই মন্তব্যের পরেই ফের জল্পনা ছড়াচ্ছে শিবসেনা ও বিজেপির ফের জোটসঙ্গী হওয়ার। যদিও মুখপত্র সামনায় সব জল্পনা উড়িয়ে দিয়ে শিবসেনা দাবি করেছে, মোদী-ঠাকরে সাক্ষাতের পিছনে রাজনৈতিক কোনও কারণ নেই।

বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা শরদ পাওয়ার দাবি করেন, শিবসেনা, এনসিপি, কংগ্রেসের মহাবিকাশ আঘাড়ি জোট মেয়াদ পূর্ণ করবে। শিবসেনার প্রশংসা করে তিনি বলেন, জোটসঙ্গী হিসেবে তাঁদের উপর ভরসা করা যায়।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে বিধানসভা নির্বাচনে বিচ্ছেদ হয় শিবসেনা ও বিজেপি জোটের। মুখ্যমন্ত্রী পদ দাবি করা হয় শিবসেনার তরফে। কিন্তু বিজেপি সেই দাবি মেনে নেইনি। যার ফলে প্রাক্তন জোট সঙ্গী বিজেপিকে ছেড়ে এনসিপি, কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করে মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন করে শিবসেনা।

দিনকয়েক আগেই দিল্লিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করেন শিবসেনা সুপ্রিমো উদ্ধব ঠাকরে। বৈঠকের পর উদ্ধব বলেছিলেন, রাজনৈতিক সম্পর্কের সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্কের কোনও যোগাযোগ নেই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে এখনও ব্যক্তিগত সম্পর্ক অটুট রয়েছে। উদ্ধব ঠাকরের এই মন্তব্যের পরেই ২০২৪ সালের লোকসভা ভোট নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, আসন্ন লোকসভা ভোটের আগে ফের এক ছাতার নিচে আসতে চলেছে হিন্দুত্ববাদী দুই দল।