Saturday, June 15, 2024
রাজ্য​

নারদকাণ্ডে তলব শোভন-বৈশাখীকে

সল্টলেক: নারদ মামলায় ফের ডেকে পাঠানো হল কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে। শুক্রবার এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) ডেকে পাঠায় শোভনকে। একইসঙ্গে ইডি ডেকে পাঠিয়েছে শোভনের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কেও। এদিন বেলা ১২টা নাগাদ দু’জনেই সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে হাজির হন। মুখোমুখি বসিয়ে তাঁদের জিজ্ঞেসাবাদ করা হয়।

ইডি সূত্রে খবর, নারদ ঘুষ মামলায় শোভন-বৈশাখীকে একসঙ্গে জেরা করছেন তদন্তকারীরা। গত বছরের শেষ দিকে শোভনকে প্রথম দফায় জেরা করেছিল ইডি। কেন তিনি ম্যাথু স্যামুয়েলের কাছ থেকে টাকা নিয়েছিলেন, সে বিষয়ে নির্দিষ্ট কোনও কারণ উল্লেখ করতে পারেননি শোভন। এমনকি আয়-ব্যয়ের হিসেব নিয়েও তিনি কোনও নথি জমা দেননি বলেই তদন্তকারীদের দাবি। তদন্তকারীরা জানিয়েছিলেন, ইডির কাছে শোভন দাবি করেন, এ সব আমি জানি না। আমার স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় জানেন।

এরপরে রত্নাদেবীকে জেরা করা হয়। একই সঙ্গে জেরা করা হয় শোভনের শ্যালক ও সহযোগী শুভাশিস দাসকেও। তখনই বৈশাখীর বিষয়টি সামনে আসে। রত্না জানান, শোভনের যাবতীয় সম্পত্তির হিসাব রাখতেন বৈশাখী। সেই সূত্র ধরেই শোভন বৈশাখীকে তলব করা হয়। তাছাড়া শোভন চট্টোপাধ্যায়ও একাধিক বার দাবি করেছেন, বৈশাখী তাঁর বিপদের বন্ধু। মামলা সংক্রান্ত সব বিষয়ে সহযোগিতা করেছেন বৈশাখী। মনে করা হচ্ছে, সে জন্যেই শোভন-বৈশাখীকে একসঙ্গে জেরা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইডি।