Sunday, June 23, 2024
দেশ

৪০ শহরে ছুটবে ১০টি ‘মেড ইন ইন্ডিয়া’ ইঞ্জিনবিহীন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস

নয়াদিল্লি: ২০২২ সালে স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি হবে। সেই উপলক্ষ্যে অভিনব উদ্যোগ নিতে চলেছে ভারতীয় রেল (Indian Railways)। ২০২২ সালের আগস্টের মধ্যে দেশের ৪০ টি শহরে ১০টি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস চালাবে ভারতীয় রেল। ২০১৯ সালের অক্টোবরে যাত্রা শুরু হয় বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের। এটি দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি ভারতের প্রথম ইঞ্জিনবিহীন সেমি হাইস্পিড ট্রেন।

নতুন রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব (Ashwini Vaishnaw) জানিয়েছেন, ২০২২ সালের আগস্টের মধ্যেই অন্তত ৪০টি শহরে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস পরিষেবা চালু হবে। এবিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে হায়দ্রাবাদের ইঞ্জিনিয়ারিং ফার্ম মেধার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিল কেন্দ্র। চুক্তিতে বলা হয়েছিল, ৪৪টি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেনের জন্য রেলকে বৈদ্যুতিক সিস্টেম সরবরাহ করবে মেধা। স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এই সিদ্ধান্তের জেরে উৎপাদন প্রক্রিয়া আরও বাড়াতে বলা হয়েছে। আগামী মার্চের মধ্যে পরীক্ষামূল‌ক ভাবে অন্তত দু’টি প্রোটোটাইপ চালু করে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এখন দেশে মাত্র দুটি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল করছে। প্রথমটি দিল্লি-বারাণসী রুটে। যেটি ২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উদ্বোধন করেছিলেন। দ্বিতীয়টি দিল্লি থেকে জম্মুর কাটরা রুটে। পরীক্ষামূলক যাত্রায় বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের গতি ছিল প্রতি ঘণ্টায় ১৮০ কিলোমিটার। যাত্রী নিয়ে প্রতি ঘণ্টায় এই ট্রেন ছুটবে ১৩০ কিলোমিটার গতিতে। এই ট্রেনে দিল্লি থেকে কাটরা পৌঁছতে সময় লাগবে ১২ ঘণ্টা।

শর্ত অনুযায়ী, একটি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসকে ছাড়পত্র দিতে গেলে সেই প্রোটোটাইপটিকে যাত্রী নিয়ে অন্তত ১ লাখ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হবে। তারপরই সেই প্রোটোটাইপের উৎপাদন শুরু করা যাবে। অর্থাৎ বাণিজ্যিক ভাবে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস চালাতে এখনও সময় লাগবে।

জানা গিয়েছে, দেশের বিভিন্ন শহরে মোট ১০০টি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস চালানোর পরিকল্পনা রয়েছে রেল মন্ত্রকের। যার জন্যে খরচ হতে পারে অন্তত ১১ হাজার কোটি টাকা।