Monday, June 24, 2024
রাজ্য​

অক্সফোর্ডে করোনার প্রতিষেধক তৈরির টিমে বাংলার তরুণী

কলকাতা: করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরির ক্ষেত্রে আশার আলো দেখাচ্ছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক দল। আর সেই দলে রয়েছেন বঙ্গকন্যা চন্দ্রা দত্ত। কলকাতার টালিগঞ্জের বাসিন্দা চন্দ্রা দত্ত। ২০০৪ সালে গোখেল মেমোরিয়াল গার্লস স্কুল থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন চন্দ্রা। হেরিটেজ ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং ও বায়োটেকনোলজিতে বি. টেক করেন চন্দ্রা। এরপরই উচ্চশিক্ষার জন্য ২০০৯ সালে ইংল্যান্ডে পাড়ি দেন তিনি।

লিডস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বায়োসায়েন্সে এমএসসি করেন চন্দ্রা। আপাতত অক্সফোর্ডে থাকেন ৩৪ বছরের চন্দ্রা। গত বছর থেকে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ক্লিনিক্যাল বায়োম্যানুফ্যাকচারিং কেন্দ্রে কাজ শুরু করেন। কোয়ালিটি অ্যাসিউরেন্স ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার মানব শরীরে পরীক্ষামূলক ভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে এই ভ্যাকসিন। হিউম্যান ট্রায়ালে পাশ করলে চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের মধ্যেই মিলবে প্রতিষেধক। করোনা ভ্যাকসিন টিমের সঙ্গে কাজ করতে পেরে অত্যন্ত গর্বিত বোধ করছেন বলে জানিয়েছেন চন্দ্রা।

চন্দ্রা বলেন, এটা দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা। আমার মতে, মানবজীবন আরও ভালো করে তোলাই আমাদের লক্ষ্য। তবে আগে এরকম কিছুর সাক্ষী থাকিনি। দুর্দান্ত অনুভূতি। আমার মতে, সারা বিশ্ব এই প্রতিষেধক চায় যাতে জীবন আবার স্বাভাবিক হয়ে ওঠে।

ভারতেও প্রতিষেধক উৎপাদনের বিষয়ে চন্দ্রা বলেন, আমি ডিস্ট্রিবিউশনে কাজ করি না। তবে আমি যা জানতে পেরেছি, তাতে ট্রায়ালে পাশ করার আগে আমরা পুণের সিরাম ইনস্টিটিউটে বড়সড় উৎপাদন করব। যাতে ট্রায়ালে পাশ হলেই তা বাজারে চলে আসে।