Sunday, June 23, 2024
কলকাতা

পুর ভোটে কতগুলি আসন পেতে পারে বিজেপি? কি বলছে সমীক্ষা?

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: পুর ভোটে কোন দল কতগুলি আসন পাবে তা নিয়ে এই মুহূর্তে উন্মাদনা তুঙ্গে। এর মধ্যেই এবিপি আনন্দ-সি ভোটারের জনমত সমীক্ষা সামনে এল। তাতে দেখা যাচ্ছে, পুর ভোটে তৃণমূল নিরঙ্কুশ জয় পেয়ে পুরসভার ক্ষমতায় আসছে। অন্যদিকে, বিরোধীরা কার্যত নিশ্চিহ্ন হয়ে যাচ্ছে। সমীক্ষা বলছে, পুর ভোটে তৃণমূলের জয় নিয়ে রাজনৈতিক শিবিরের বড় অংশে কার্যত কোনও সংশয়ই নেই।

এবিপি আনন্দ-সি ভোটারের জনমত সমীক্ষা বলছে, কলকাতার ১৪৪টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৩০টিতে জিততে পারে তৃণমূল। বাকি ১৪টি আসনের মধ্যে ১৩টি বিজেপি এবং ১ টি আসন পেতে পারে বাম শিবির। সমীক্ষা অনুযায়ী, কলকাতায় তৃণমূল পেতে পারে ৫২ শতাংশ ভোট। বিরোধীদের মধ্যে বিজেপির ২৪ শতাংশ, বামরা ৯ শতাংশ এবং কংগ্রেস পেতে পারে ৩ শতাংশ ভোট।

জনমত সমীক্ষার ফলের সঙ্গে চূড়ান্ত ফলাফল হুবুহ মেলে না। সামান্য কিছুটা আভাস পাওয়া যায়। তবে নিজেদের জয়ের বিষয়ে আশাবাদী তৃণমূল কংগ্রেস। দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “বিধানসভা ভোটে মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি যে আস্থা দেখিয়েছেন, এটা তারই প্রতিফলন। করোনা, লকডাউন এবং ঘূর্ণিঝড়ের মতো গুরুতর পরিস্থিতিতে আমাদের কাউন্সিলরেরা মানুষের পাশে ছিলেন, এই সমীক্ষা তারই পূর্বাভাস দিচ্ছে।”

তবে এই সমীক্ষাকে গুরুত্ব দিতে নারাজ বিজেপি নেতৃত্ব। রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেছেন, ‘‘এই সমীক্ষা আমরা মানছি না। এর সঙ্গে বাস্তবতার কোনও মিল নেই। এই ধরনের জনমত সমীক্ষা অনেক সময়ই মানুষের রায়কে প্রভাবিত করার জন্যও ব্যবহার করা হয়।”

সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘‘আগরতলায় বিজেপির যা কায়দা, এখানে তৃণমূলেরও তাই’ই। আগরতলায় বিজেপি যদি ৫১-এ ৫১ পায়, কলকাতায় তৃণমূল কেন প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে থাকবে? তারা ১৪৪ই পাবে!’’

প্রদেশ কংগ্রেস নেতা অমিতাভ চক্রবর্তী বলেন, ‘‘সমীক্ষার দিকে তাঁকিয়ে আমরা ভোটে লড়ছি না। যাই হোক না কেন, আমরা শূন্য হাতে ফিরবে না।’’