Sunday, June 23, 2024
দেশ

মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স ২১, প্রস্তাব পাশ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: ছেলেদের মতো মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স ২১ বছর করা হল। বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স ২১ বছর করার প্রস্তাব পাশ হয়। গত বছর স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই প্রস্তাবের কথা বলেছিলেন। এক বছর পরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় এই প্রস্তাব পাশ হল।

গত বছর স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, “মা ও বোনদের স্বাস্থ্য নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার উদ্বিগ্ন। মেয়েদের অপুষ্টির হাত থেকে বাঁচাতে হলে তাদের সঠিক বয়সে বিয়ে দেওয়া প্রয়োজন। মেয়েদের বিয়ের সঠিক বয়স কত হওয়া উচিত, তা নিয়ে আলোচনা চলছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মহিলারা আমাদের চিঠি পাঠিয়েছেন।”

বর্তমানে পুরুষদের বিয়ের সর্বনিম্ন বয়স ২১ বছর এবং মহিলাদের ১৮ বছর। সরকার বাল্যবিবাহ নিষেধাজ্ঞা আইন এবং হিন্দু বিবাহ আইনে পরিবর্তনের দিকে নজর রাখছে পরিকল্পনাটি কার্যকর করতে। 

জয়া জেটলির নেতৃত্বে একটি নীতি আয়োগ টাস্ক ফোর্স মহিলাদের ২১ বছর বয়সে বিয়ের প্রস্তাবটিকে সমর্থন করেছিল। গত বছরের জুনে গঠিত টাস্ক ফোর্সের সদস্যদের মধ্যে ছিলেন শীর্ষ সরকারি বিশেষজ্ঞ ভিকে পাল, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রক, আইন মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

প্রস্তাবের সুপারিশগুলি ডিসেম্বরে জমা দেওয়া হয়েছিল। টাস্ক ফোর্স জানায়, প্রথম গর্ভধারণের সময় একজন মহিলার বয়স কমপক্ষে ২১ বছর হতে হবে। সঠিক বয়সে বিয়ে পরিবার, সমাজ এবং শিশুদের উপর ইতিবাচক আর্থিক, সামাজিক এবং স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলে। 

এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়ে রাজ্যসভার সাংসদ জয়া বচ্চন বলেছেন, “এটি একটি ভালো সিদ্ধান্ত। এর ফলে মেয়েরা পড়াশোনা করার জন্য আরও সুযোগ পাবে। তাঁরা স্বাধীনতা উপভোগ করতে পারবে। তারা আরও ভালো কর্মসংস্থানের সুযোগ পাবে।”