‘অটোয় তিনটে পুরুষ যখন ছিল, তখন নির্যাতিতার না ওঠাই উচিত ছিল’ গণধর্ষিতাকে ‘পরামর্শ’ কিরণের

চণ্ডীগড়: অটোয় যখন ৩ জন পুরুষ যাত্রী রয়েছে, তখন সেই অটোতে ওঠা উচিত হয়নি তরুণীর। চণ্ডীগড়ে গণধর্ষণ নিয়ে এমনই মন্তব্য করেন বিজেপি সাংসদ কিরণ খের।

স্টেনোগ্রাফির ক্লাস সেরে রাতে চণ্ডীগড়ের ৩৭ নম্বর সেক্টর থেকে মোহালিতে তাঁর বাড়িতে যাওয়ার জন্য গতকাল একটি অটোরিকশায় ওঠেন ২২ বছরের ওই যুবতী। চালক ছাড়াও সেই অটোয় পুরুষ যাত্রী ছিলেন তিন জন। গণধর্ষণের শিকার হন ওই যুবতী। তার পর অচৈতন্য অবস্থায় তাঁকে পড়ে থাকতে দেখা যায় চণ্ডীগড়ের ৫৩ নম্বর সেক্টরে। স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশে খবর দেন।

চণ্ডীগড় প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক বৈঠকে সাংসদ কিরণ খের বলেন, ‘‘মহিলাদের ওপর এমন ঘটনা যাতে না ঘটে তার জন্য বাবা, মাদের শিক্ষা দিতে হবে ছেলেদের। তবে মেয়েরাও দায় এড়াতে পারেন না। মেয়েদেরও সতর্ক হতে হবে। আরও সজাগ হতে হবে। চণ্ডীগড় পুলিশের ১০০ নম্বরে ডায়াল করতে পারতেন ওই মহিলা।’’

এই মন্তব্যের পর বিতর্ক শুরু হয়। টুইটারে সমালোচনা শুরু করেন নেটিজেনরা। এর জবাবে কিরণ বলেন, “যাঁরা এটা নিয়ে রাজনীতি করছেন তাঁদের জন্য লজ্জা হয়। আপনাদের ঘরেও বাচ্চা আছে, আপনাদেরও আমার মতো গঠনমূলক কথা বলা উচিত, ধংসাত্মকভাবে নয়।”