Sunday, June 23, 2024
খেলা

ইট ভাটায় কাজ করা জাতীয় মহিলা ফুটবলারকে সাহায্য কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রীর

নয়াদিল্লি: অনূর্ধ্ব ১৭ ভারতীয় দলে খেলেছেন সঙ্গীতা সোরেন। ভুটান, থাইল্যান্ডে গিয়েও ম্যাচ খেলেছেন তিনি। গতবছর ডাক এসেছিল ভারতীয় দল থেকে। তবে করোনার মোকাবিলায় সারা দেশে লকডাউন হয়ে যায়। যার ফলে সৌভাগ্য হয়নি ভারতীয় দলের জার্সি পরে খেলার। তার বদলে মাথায় ইট বয়ে দিনমজুরি করে সংসার চালান সঙ্গীতা সোরেন। ধানবাদের বাসামুদি গ্রামের একটি ইট ভাটায় কাজ করেন তিনি।

রবিবার মহিলা ফুটবলার সঙ্গীতার এই খবর ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই ব্যক্তিগত ভাবে সাহায্য করতে চেয়েছেন। সঙ্গীতাকে সাহায্য করতে চাইলেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজুও। তিনি জানিয়েছেন, খুব শীঘ্রই সঙ্গীতাকে অর্থসাহায্য করা হবে।

কিরেন রিজিজু টুইটে বলেন, সঙ্গীতা সোরেনের কথা আমি জেনেছি। অনেক আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় প্রতিনিধিত্ব করেছে সে। এই মুহূর্তে অতিমারিতে অভাবের তাড়নায় ভুগছে সে। আমার দফতরের তরফে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই তার কাছে আর্থিক সাহায্য পৌঁছে যাবে। খেলোয়াড়দের সম্মান নিয়ে বাঁচতে দেওয়াই আমাদের প্রধান লক্ষ্য।

উল্লেখ্য, গত বছর ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন তাঁকে সাহায্য করবেন বলে কথা দিয়েছিলেন। তবে সেই সাহায্য সঙ্গীতা পাননি। সরকারের ওপর ক্ষুব্ধ তিনি। সঙ্গীতা বলেন, একজন খেলোয়াড়ের ভালো খাবার এবং অনুশীলন প্রয়োজন। সরকার সেদিকে নজর দেয় না। সেই জন্যই আমার মতো ফুটবলার দিনমজুর হয়।