Thursday, June 13, 2024
আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশের খুলনায় মন্দিরের জমি দখলের চেষ্টা

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দুদের ওপর হামলার ঘটনা নতুন নয়। বিগত বছরগুলোতে হিন্দুদের ওপর হামলার ঘটনা বেড়েই চলেছে। এবছর দুর্গাপুজোর সময় একাধিক পুজো মন্ডপ, মন্দির, হিন্দুদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনা ঘটে। এবার খুলনার রূপসার মহাশ্মশান ঘাট মন্দিরের জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠল। উল্লেখ্য, দুর্গাপুজোর সময় ওই মন্দির থেকে ১৮টি বোমা উদ্ধার করা হয়েছিল।

মন্দির সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ, মহাশ্মশান ঘাটের পাশে বাঁশ পুঁতে জমি নিজেদের দখলে নেওয়ার চেষ্টা করছে। কয়েকদিন আগে হিন্দুদের মন্দিরের জমিতে একটি বাথরুম তৈরি করা হয়েছে বলে অভিযোগ। যদিও প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সেটি ভেঙে ফেলা হয়। কিন্তু তারপরেও মন্দিরের পূজারীদের উদ্বেগ কমেনি।

মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক রতন কুমার নাথ বলেন, ‘দুর্গাপুজোর সময় খবর পেয়ে র‌্যাব মন্দিরের প্রধান গেট থেকে ১৮টি বোমা উদ্ধার করে। ওই ঘটনায় কারা জড়িত সে সম্পর্কে কিছু আমাদের জানানো হয়নি। তবে বোমাগুলো অত্যন্ত শক্তিশালী বলে জানা গেছে।’

দুর্গাপুজোর নবমীর রাতে মন্দিরের প্রধান গেট থেকে বোমা উদ্ধারের পর থেকে স্থানীয় সংখ্যালঘু হিন্দুদের মন এখনও আতঙ্ক রয়ে গিয়েছে। রতন কুমার নাথ বলেন, ‘কয়েকদিন আগে মহাশ্মশানের চিতার পাশে রাতের অন্ধকারে কে বা কারা বাঁশ পুঁতে রেখে গিয়েছে। এটা মন্দিরের জমি দখলে আমরা মনে করছি। বিষয়টি সম্পর্কে আমরা প্রশাসনকে অবহিত করেছি। কালী পুজোর পরে তাঁরা পদক্ষেপ নেবেন বলে জানিয়েছেন।’

রতন কুমার নাথের অভিযোগ, ‘পাশের বাসিন্দারা কয়েকদিন আগে চিতার পাশে বাথরুম তৈরি করেছিল। প্রশাসনকে জানানোর পরে ম্যাজিস্ট্রেট এসে বাথরুম ভেঙে দিয়েছে। খুলনা শহরের অন্যতম বড় মন্দিরকে দখলের চেষ্টা করা হচ্ছে।’