Wednesday, May 29, 2024
দেশ

মোদী জমানায় দু’বার নয়, তিনবার পাকিস্তানে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়েছে: রাজনাথ সিং

ম্যাঙ্গালুরু: মোদী জমানায় দু’বার নয়, তিনবার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়েছে। ২০১৬ সালে উরি সেনা ছাউনিতে জঙ্গি হামলা এবং পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর দু’বার যে স্ট্রাইক হয়েছে সেটা কেন্দ্রীয় সরকার আগেই জানিয়েছিল। এবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানালেন, দু’বার নয়, তিনবার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়েছে, তবে এরমধ্যে দু’টি অভিযানের কথা আপনাদের সামনে বলতে পারলেও তৃতীয়টির বিষয়ে কোনও কিছু জানাতে পারব না। এর জন্য আমি ক্ষমা প্রার্থী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই মন্তব্যের পর জল্পনা শুরু হয়েছে তিন নম্বর সার্জিকাল স্ট্রাইক নিয়ে। কবে ও কোথায় চালানো হয় সেই স্ট্রাইক ? সেবারও কি পাকিস্তানের জঙ্গি গোষ্ঠীগুলিকে নিশানা করা হয়েছিল?

পাকিস্তানকে একহাত নিয়ে কর্ণাটকের ম্যাঙ্গালুরুর জনসভায় রাজনাথ সিং বলেন, পাকিস্তান থেকে আগত জঙ্গিরা উরিতে আমাদের জওয়ানদের উপর কাপুরুষের মতো হামলা চালিয়েছিল। আমাদের জওয়ানরা তার জবাব দিয়েছিল। তারপর সেদেশে হাহাকার পড়ে গিয়েছিল। পুলওয়ামা হামলার পর এয়ার স্ট্রাইক চালানো হয়। ভারত এখন আর দুর্বল নেই।

১৪ ফেব্রুয়রি কাশ্মীরের পুলওয়ামাতে জঙ্গি হানায় শহিদ হন সিআরপিএফের ৪০ জনের বেশি জওয়ান। এই ঘটনার বদলা  নিতে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে জঙ্গি  সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদের ঘাঁটিতে আঘাত হানে ভারতীয় বায়ুসেনা। হামলায় ৩০০ জঙ্গি খতম হয় বলে খবর।

পাল্টা জবাবে পরদিন ভারতের হামলা করে পাকিস্তান। সেই স্ট্রাইক রুখতে গিয়ে পাকিস্তানের হাতে বন্দি হন ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। পরে আন্তর্জাতিক চাপের কাছে নতি স্বীকার করে তাঁকে ছেড়ে দেয় ইসলামাবাদ।

২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে সার্জিকাল স্ট্রাইক চালানো হয়। তার মাত্র কয়েকদিন আগে উরিতে হামলা চালিয়ে ১৯ জন সেনা জওয়ানকে হত্যা করে জঙ্গিরা। ২০১৫ সালে মায়ানমারেও আঘাত হানে ভারতীয় বায়ুসেনা। তার দিন সাতেক আগে মণিপুরে ১৮ জন সেনা জওয়ান শহিদ হন। তবে সেই হামলা সম্পর্কে বেশির ভাগ তথ্যই গোপন রাখা হয়।