Tuesday, May 21, 2024
আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশের ফরিদপুরে মন্দিরের মূর্তি ভাঙচুরের প্রতিবাদে মানববন্ধন

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: বাংলাদেশের ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলা শহরে এক রাতে ৩টি মন্দিরের ১০টি প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। গত ১৫ ডিসেম্বর দিবাগত রাতের ওই ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে ১৭ ডিসেম্বর রোববার আলফাডাঙ্গা চৌরাস্তা এলাকায় মানববন্ধন করেছে উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদসহ সনাতনী বিভিন্ন সংগঠন। 

এ ছাড়া গত ১৬ ডিসেম্বর শনিবার রাতে উপজেলা পূজা উদ্‌যাপন কমিটি ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।

আলফাডাঙ্গায় যে তিনটি মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর করা হয়েছে, সবই পৌর এলাকার এক কিলোমিটারের মধ্যে অবস্থিত। মন্দিরগুলো হলো ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কুশুমদী মহল্লার কেন্দ্রীয় হরি মন্দির, শ্রী বিষ্ণু পাগলের মন্দির এবং ৭ নম্বর ওয়ার্ডের আলফাডাঙ্গা মহল্লার শ্রীশ্রী দামুদর আখড়া। এর মধ্যে হরি মন্দিরের দুর্গা, লক্ষ্মী, সরস্বতী, মনসা ও মহাদেব; বিষ্ণু পাগলের মন্দিরের মহাদেব ও মনসা এবং দামুদর আখড়া মন্দিরের মহাদেব, শিবলিঙ্গ ও নারায়ণসহ ১০টি প্রতিমা ভাঙচুর করা হয়।

কেন্দ্রীয় হরি মন্দিরের সভাপতি ও উপজেলা পূজা উদ্‌যাপন কমিটির সভাপতি প্রবীর কুমার বিশ্বাস প্রথম আলোকে বলেন, শুক্রবার দিবাগত রাত একটা থেকে শনিবার সকাল ছয়টার মধ্যে তিনটি মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর করা হয়। প্রতিটি মন্দিরে সিসিটিভি ক্যামেরা আছে। ইতিমধ্যে আলফাডাঙ্গা থানা-পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে।

আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন, ঘটনার খবর পাওয়ামাত্রই গতকাল সকালে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ ইতিমধ্যে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। এ ঘটনায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে প্রতিমা ভাঙচুরের প্রতিবাদে এবং দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির দাবিতে আজ আলফাডাঙ্গা চৌরাস্তা এলাকায় মানববন্ধন করে উপজেলা ও পৌর পূজা উদ্‌যাপন পরিষদ, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদসহ সব সনাতনী সংগঠন। সকাল ১০টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী আয়োজিত কর্মসূচিতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পাশাপাশি এলাকার সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে বক্তব্য দেন ফরিদপুর-১ (বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা-মধুখালী) আসনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের (বিএনএম) প্রার্থী ও দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শাহ মো. আবু জাফর; স্বতন্ত্র প্রার্থী কৃষক লীগের নেতা আরিফুর রহমান; পৌর মেয়র মো. আলী আকসাদ; উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম আকরাম হোসেন; সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলীম; উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শেখ দেলোয়ার হোসেন।

এ ছাড়া উপজেলা পূজা উদ্‌যাপন কমিটির সভাপতি প্রবীর কুমার বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ কুমার কুণ্ডু, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মনোরঞ্জন সরকার, পৌর পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সভাপতি স্বপন কুণ্ডু, ফরিদপুর জেলা পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুকেশ সাহা, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক বিধান সাহা প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বক্তারা বলেন, আলফাডাঙ্গায় শত বছর ধরে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি চলে আসছে। নির্বাচনের আগে বিজয়ের মাসে অশুভ শক্তি আলফাডাঙ্গার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। আলফাডাঙ্গার সর্বস্তরের মানুষ, হিন্দু-মুসলিম মিলে অশুভ শক্তিকে প্রতিহত করা হবে। সংখ্যালঘুদের ভয়ভীতি দেখিয়ে, আতঙ্ক ছড়িয়ে নির্বাচনপ্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা ঐক্যবদ্ধ হয়ে ঠেকানোর আহ্বান জানান তাঁরা।