Sunday, April 21, 2024
দেশ

পরপর কন্যাসন্তানের জন্ম দেওয়ায় গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যা

রাজারহাট: প্রথমে দুই কন্যা সন্তানের মৃত্যু হয়। পরে আরও দুই কন্যা সন্তানের জন্ম দেন ফতেমা বিবি। সেই সঙ্গে টাকার দাবি না মেটানোয় ওই গৃহবধূকে মারধর করে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে। রাজারহাটের পানাপুকুরে এই ঘটনা ঘটে। ফতেমা বিবির বাপের বাড়ি উত্তর গাজিপুরে।

জানা গেছে, ১৫ বছর আগে রাজারহাটের পানাপুকুর এলাকার আসগর আলির সঙ্গে বিয়ে হয় ফাতেমা বেগমের। এই দম্পতির দুই মেয়ে রয়েছে। আরও দুটি কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন ফতেমা, তবে তাদের মৃত্যু হয়।

পরিবারের অভিযোগ, খুনের একদিন পর তারা সব জানতে পারেন। বারবার টাকা চাইত জামাই অজগর আলি মোল্লা। গত ২ জানুয়ারি বউকে বাপের বাড়ি পাঠিয়ে পঞ্চাশ হাজার টাকা চায়। টাকা না নিয়েই পরের দিন ফিরে যান ফতেমা বিবি। টাকা আনতে না পারায় তাকে নৃশংসভাবে পিটিয়ে খুন করা হয় বলে পরিবারের অভিযোগ।

শুক্রবার ফাতেমার বাবার বাড়ির লোকজন জানতে পারেন, ফতেমা গুরুতর অসুস্থ। তাকে দেখতে রাজারহাটের বাড়িতে যান তারা। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখেন, ঘরের মধ্যে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় পড়ে ফতেমা, তার হাত-পা বাঁধা।

জামাই, মেয়ের শ্বশুর, শাশুড়িসহ আট জনের বিরুদ্ধে রাজারহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে ওই ফাতেমার পরিবার । ঘটনার পর থেকেই পলাতক গোটা পরিবার।