Sunday, June 23, 2024
দেশ

চিনা প্রতিদ্বন্দীকে হারিয়ে এশিয়ার দ্বিতীয় ধনী ব্যক্তি গৌতম আদানি

মুম্বাই: এশিয়ার দ্বিতীয় ধনী ব্যক্তি হলেন আদানি গ্রুপের চেয়ারম্যান গৌতম আদানি (Gautam Adani, founder and promoter of Adani Group)। চিনের ধনকুবের জং শানশানকে (Zhong Shanshan) সরিয়ে ১৪ তম স্থান অধিকার করে নিয়েছেন গৌতম আদানি যার ফলে এশিয়ার দ্বিতীয় ধনী ব্যক্তি হয়ে উঠলেন তিনি। ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার্স ইন্ডেক্স (Bloomberg Billionaire’s index) অনুয়ায়ী, মুকেশ আম্বানি বিশ্বের ১৩ তম ধনী ব্যক্তি। চিনের শানশান একধাপ পিছিয়ে ১৫ তম স্থানে চলে গেলেন।

চলতি বছরে ফেব্রুয়ারির শুরুতে শানশাকে টপকে এশিয়ার ধনী ব্যক্তি হন মুকেশ আম্বানি শানশানের মোট সম্পদের পরিমাণ ৬৩.৩ বিলিয়ন। অন্যদিকে, আদানির মোট সম্পদের পরিমাণ ৬৬.‌৬ বিলিয়ন। এই বছরে আদানি সম্পদ ৩৭.৭ বিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি পেয়েছে এবং শানশানের কমেছে ১৪.৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার্স ইন্ডেক্স অনুয়ায়ী, মুকেশ আম্বানির মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৬৭.৫ বিলিয়ন ডলার আদানি এন্টারপ্রাইস, আদানি গ্যাসের শেয়ারের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় চলতি বছরে আদানি গ্রুপের সম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছে। আদানি গ্রুপের গ্যাসের শেয়ার ১২ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে আদানি এন্টারপ্রাইজসের ৮২৭ শতাংশ এবং আদানি ট্রান্সমিশনের শেয়ার ৬১৭ শতাংশ বেড়েছে।

অন্যদিকে,  মুকেশ আম্বানির সম্পত্তি কমেছে বিপুল পরিমাণে। তাহলে মুকেশ আম্বানি কি এশিয়া তথা ভারতের শীর্ষ ধনীর খেতাব হারাতে চলেছেন? দু’দশক আগে সামান্য মালপত্র কেনাবেচা দিয়ে ব্যবসা শুরু করা গৌতম আদানি টপকে শীর্ষে যেতেই পারেন! কেননা শক্তি, সংস্থান, বন্দর, রসদ, কৃষিক্ষেত্র, রিয়েল এস্টেট, আর্থিক পরিষেবা, গ্যাস বিতরণ, প্রতিরক্ষা ব্যবসা, বিমানবন্দর ও অন্যান্য অনেকগুলি ব্যবসার মালিক গৌতম আদানি। তাঁর সংস্থার শেয়ারের দাম আকাশ ছোঁয়া বৃদ্ধি পেয়েছে।