Thursday, June 13, 2024
দেশ

পাঠ্যসূচিতে বিপর্যয় ও মহামারি মোকাবিলা সংক্রান্ত বিষয় যোগ করছে ওড়িশা সরকার

ভূবনেশ্বর: একে করোনার লাগামছাড়া সংক্রমণ তার উপর প্রবল শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় সিডর, আয়লা, ফনি, আমফান এবং ইয়াসের তান্ডব। একের পর এক বিপর্যয়ে বিপর্যস্ত জনজীবন। তাই ভবিষ্যত প্রজন্মও যাতে বিভিন্ন বিপর্যয় থেকে শিক্ষা নেয় এবং সচেতন হয়, সেই লক্ষ্যে স্কুল-কলেজের পাঠ্যসূচিতে বিপর্যয় ও মহামারি মোকাবিলা বিষায়ক তথ্য যোগ করতে চলেছে ওড়িশা সরকার।

শনিবার ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কের নেতৃত্বে একটি উচ্চপদস্থ বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই নয়া এই সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতভাবে পাশ হয়েছে। এ বিষয়ে নবীন পট্টনায়ক জানান, পঞ্চম দফায় সরকার গড়ার আগে ২০১৯ সালে ঘূর্ণিঝড় ফনির তান্ডবে লন্ডভন্ড হয়ে গিয়েছিল গোটা রাজ্য। এরপর গত বছর আঘাত হানে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় আমফান। সেই সাথে করোনা মহামারি। দুইয়ের মোকাবিলা করতে হচ্ছে আমাদের। সংকটকালে সাধারণ মানুষকে সেবা দিতে সর্বাত্মক চেষ্টা করছে তাঁর সরকার।

মুখ্যমন্ত্রী জানান, নতুন প্রজন্মকে বিপর্যয় সম্পর্কে আগে থেকেই সম্যক ধারণা দিতে এবং কিভাবে বিপর্যয় মোকাবিলা করতে হয়, সেই সম্পর্কে ধারণা দিতে স্কুল, কলেজের পাঠ্যসূচিতে বিপর্যয় ও মহামারি মোকাবিলা পাঠ দেওয়া হবে। ওড়িশা সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে রাজ্য মন্ত্রিসভার অনেক সদস্য।

তাঁরা জানান, আগে বিপর্যয় মোকাবিলার ক্ষেত্রে ওড়িশাকে সকলে করুণা করত। এখন বিপর্যয় মোকাবিলা করার ক্ষেত্রে গোটা বিশ্ব ওড়িশার প্রশংসা করে। উল্লেখ্য, গত ৩০ মাসে ওড়িশা ৬টি ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলা করেছে। শুধুমাত্র আগাম সর্তকতা জেরে আগের থেকে বর্তমান সময়ে ক্ষয়ক্ষতি, জীবনহানির পরিমাণ অনেকটাই কমিয়ে এনেছে ওড়িশা সরকার।