Friday, June 14, 2024
দেশ

রাষ্ট্রসংঘে মুখ পুড়ল পাকিস্তানের, পুলওয়ামার জেরে ভারতের পাশে চিন

নয়াদিল্লি: জঙ্গি মাসুদ আজহার ইস্যুতে অবশেষে নিজেদের অবস্থান বদলাচ্ছে চিন। বৃহস্পতিবার তেমনই ইঙ্গিত দিল চিন। পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার নিন্দা জানিয়ে সরব হয়েছে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। পাশাপাশি এ ঘটনাকে ‘ঘৃণ্য ও কাপুরুষোচিত আত্মঘাতী হামলা’ বলে বর্ণনা করেছে রাষ্ট্রসংঘ। একইসঙ্গে জইশ-এ-মহম্মদ জঙ্গি সংগঠনের নামও নিয়েছে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। রাষ্ট্রসংঘের এই প্রস্তাবে পাশে দাঁড়িয়েছে পাকিস্তানের ‘বন্ধু’ রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত চিনও। যা কূটনৈতিক স্তরে ভারতের বড়সড় সাফল্য বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

পাশাপাশি, মাসুদ আজহারকে আন্তজার্তিক জঙ্গির তকমা দিল রাষ্ট্রসংঘ। রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে এই প্রস্তাব মঞ্জুর হয়। রাষ্ট্রসংঘের এই প্রস্তাবের পাশে রয়েছে চিনও। পুলওয়ামা হামলার তীব্র নিন্দাও করা হয়েছে চিনের তরফ থেকে। রাষ্ট্রসংঘের প্রস্তাব অনুযায়ী, পুলওয়ামায় হামলায় দোষীদের শাস্তির প্রস্তাব। বিশ্বকে ভারতের পাশে দাঁড়াতে আবেদন রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের।

রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ জানিয়েছে, নিহতদের পরিবার ও ভারত সরকারের প্রতি সমব্যথী নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা। যাঁরা জখম হয়েছেন, তাঁদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। সন্ত্রাসবাদ দমন প্রসঙ্গে রাষ্ট্রসংঘ জানিয়েছে, এই নিন্দনীয় ঘটনায় অপরাধী, সংগঠক, অর্থদাতাদের শাস্তির ব্যাপারে জোর দিচ্ছে নিরাপত্তা পরিষদ।

উল্লেখ্য, রাষ্ট্রসংঘে ‘বিশ্ব সন্ত্রাসী’-র তালিকায় জইশ প্রধান মাসুদ আজহারের নাম অন্তর্ভুক্তি করা নিয়ে মরিয়া ভারত সরকার। আজহারকে ‘বিশ্ব সন্ত্রাসী’ হিসেবে ঘোষণা করতে ভারতের পথে বাধা হিসেবে বরাবরই দাঁড়িয়েছে চিন। অবশেষে, পুলওয়ামার হামলায় রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের নিন্দা প্রস্তাবে যেভাবে চিন পাশে দাঁড়াল, তা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে কূটনৈতিক মহল।