Saturday, June 15, 2024
Latestরাজ্য​

করোনা রোগীদের জন্য ১০৪ বছরের প্রথা ভেঙে মাছ-মাংস ঢুকলো ভারত সেবাশ্রম সংঘে

কলকাতা: করোনার দ্বিতীয় ধাক্কায় নাজেহাল অবস্থা গোটা দেশের। মারণ করোনা ভাইরাসকে হার মানাতে যে যেভাবে পারছেন লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন। গেরুয়াবসন পরা বীর সন্ন্যাসীরাও এই যুদ্ধে সামিল হয়েছেন। তবে করোনাকালে নজির গড়ল ভারত সেবাশ্রম সংঘ (Bharat Sevashram Sangha)। আমিষ খাবার প্রবেশে ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা ছিল সেখানে। চিরকালীন এই প্রথা একেবারে অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলা হচ্ছিল গত ১০৪ বছর ধরে। এবার সেখানে আমিষ খাবার রান্না হচ্ছে করোনা আক্রান্তদের জন্য।

স্বামীজিরা জানিয়েছেন, করোনা রোগীদের সুস্বাস্থ্য়ের জন্যে চাই আমিষ জাতীয় খাবার। তাই চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে আমিষ খাবার তুলে দেওয়া হচ্ছে করোনা আক্রান্তদের মুখে। যার ফলে ভাঙল ১০৪ বছরের প্রথা। সমস্ত নিষেধাজ্ঞা উড়িয়ে এই প্রথম ভারত সেবাশ্রম সংঘে মাছ, মাংস, ডিম ঢুকলো। আশ্রমের এই সিদ্ধান্তকে যুগান্তকারী বলে অভিহিত করেছন সাধারণ মানুষ।

উল্লেখ্য, ১৯১৭ সালে স্বামী প্রণবানন্দজী মহারাজ প্রতিষ্ঠিত ভারত সেবাশ্রম সংঘে আমিষ নিষিদ্ধ। করোনাকালে শুক্রবার সেখানে ৩০ বেডের করোনা হাসপাতাল চালু হয়েছে। করোনা রোগীদের সুস্বাস্থ্য়ের কথা মাথায় রেখে ডিম, মাছ, মাংসের ব্যবস্থা করলেন স্বামীজিরা। তাঁদের কথায়, ধর্মীয় রীতিনীতির চেয়েও রোগীদের সুস্থ করে তোলাই সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ।

এদিন করোনা হাসপাতালের উদ্বোধন করেন ভারত সেবাশ্রম সংঘের প্রধান সম্পাদক স্বামী বিশ্বাত্মানন্দ মহারাজ। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংঘের গড়িয়া শাখার প্রধান স্বামী গিরিশানন্দ। জানানো হয়েছে, প্রয়োজনে বেডের সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে। এখানে রয়েছে CCU ও ভ্যান্টিলেশনের ব্যবস্থাও।

Published by: সমরেশ সরকার