Friday, June 14, 2024
আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ তুলে হিন্দু মহিলার জেল

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলার রামপাল থানার গৌরম্ভা ইউনিয়নে ১নং ওয়ার্ডের রুপালী দাসের (৪৫) বিরুদ্ধে ধর্মীয় অবমাননার অভিযোগ।

জানা গেছে, ২৪ সেপ্টেম্বর রূপালী রানী টিউবওয়েল থেকে জল আনার সময় মোমেনা বেগম নামে এক মুসলিম মহিলার সাথে বিবাদ হয়। বাকবিতণ্ডার সময় ওই মুসলিম মহিলা তাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। পরবর্তীকালে, সে গ্রামের মধ্যে রূপালী সম্পর্কে মিথ্যা কথা বলতে থাকেন। অভিযোগ করেন, মহম্মদ এবং ইসলাম নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করেছেন রূপালী দাস। এরপর রূপালি দাসের বিরুদ্ধে মিছিল শুরু হয়। ২৫ সেপ্টেম্বর স্থানীয় নেতৃবৃন্দ সালিশ করে রুপালী দাসকে সকলের সামনে ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ দেয়। রুপালি দাস সকলের সামনে ক্ষমা চান।

কিন্তু পরদিন ২৬ সেপ্টেম্বর মহিলারা মিছিল করে রুপালী দাসের (Rupali Rani Das) বাড়িতে যায়। পরে পুলিশ এসে রুপালী দাসকে নিয়ে যায়। ইয়াছিন খন্দকার (৩৩)বছর বয়স্ক একজন রুপালী দাসের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ১৫৩, ২৯৮ এবং ৫০৬ ধারায় মামলা করে এবং পুলিশ গ্রেফতার করে জেল হেফাজতে পাঠায়।

তবে লক্ষনীয় যে, ৩ টি ধারাই জামিনযোগ্য। অথচ বাগেরহাট আদালতে আইনজীবীরা জামিন শুনানিতে বিচারপতি জামিন দিল না। এখন রুপালী দাস বাগেরহাট জেলে আছেন।

বাগেরহাট জেলা পুজা পরিষদ ও ঐক্যপরিষদের আইনজীবীরা আদালতে শুনানীতে ছিলো। হিন্দু মহিলাদের সম- অধিকারের জন্য অনেক NGO, শিক্ষিত মহিলা সংগঠন, হিন্দু মহিলা সংগঠন, মানবাধিকার সংগঠন, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ অনেক কাজ করে! কিন্ত এই মহিলা রুপালী দাসের অমানবিক ঘটনার জন্য কোন মহিলা সংগঠন বা মানবাধিকার সংগঠন এগিয়ে আসেনি। 

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানে প্রায়শই এ ধরনের ঘটনা হয়ে থাকে। তবে বাংলাদেশের ইতিহাসে মহিলার বিরুদ্ধে ধর্মীয় অবমাননার অভিযোগ তুলে জেলে প্রেরণ এই প্রথম।