Sunday, June 23, 2024
রাজ্য​

রদবদলের আগে মন্ত্রিত্ব খোয়ালেন বাবুল সুপ্রিয়

কলকাতা: বুধবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভায় রদবদল হতে চলেছে। তার আগে পদত্যাগ করতে বলা হয়েছে একাধিক মন্ত্রীকে। পশ্চিমবঙ্গ থেকে ইস্তফা দিতে বলা হয় রায়গঞ্জের বিজেপি সাংসদ তথা নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী এবং আসানসোলের সাংসদ তথা পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন দফতরের প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে। ইতিমধ্যেই পদত্যাগ করেছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন, শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশাঙ্ক, বাবুল সুপ্রিয় এবং দেবশ্রী চৌধুরী। অর্থাৎ বাংলা থেকে দু’জন মন্ত্রীই তাঁদের মন্ত্রিত্ব পদ খোয়ালেন।

প্রশ্ন উঠছে তাহলে তাঁদের জায়গায় মন্ত্রী হবেন কারা? এক্ষেত্রে ৬ জনের নাম উঠে আসছে। তাঁরা হলেন- নিশীথ প্রামাণিক, শান্তনু ঠাকুর, লকেট চট্টোপাধ্যায়, সুরিন্দর সিং আলুহালিয়া, জগন্নাথ সরকার এবং দীনেশ ত্রিবেদী। তবে নিশীথ প্রামাণিক ও শান্তনু ঠাকুরের মন্ত্রি হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই নরেন্দ্র মোদীর বাসভবনে পৌঁছে গিয়েছেন নিশীথ প্রামাণিক, শান্তনু ঠাকুর। গত লোকসভা ও বিধানসভা ভোটে উত্তরবঙ্গে ভালো ফল করার জন্য নিশীথ প্রামাণিককে মন্ত্রী করা হতে পারে বলে খবর। অন্যদিকে, নয়া নাগরিকত্ব আইন পশ্চিমবঙ্গে কার্যকর না হওয়ায় মতুয়া সম্প্রদায়ের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। সেটাকে সামাল দিতে শান্তনু ঠাকুরকে মন্ত্রী করা হবে বলে খবর।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে টালিগঞ্জ থেকে বাবুল সুপ্রিয়কে প্রার্থী করা হয়েছিল। কিন্তু তৃণমূল নেতা অরূপ বিশ্বাসের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে যান তিনি। বর্তমানে সাংসদ রয়েছে তাঁর, কিন্তু মন্ত্রিত্ব পদ থাকল না। একুশের নির্বাচনের পর রাজ্য বিজেপি সংগঠনে ধস নেমেছে। একের পর নেতা যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে। তখন বসে বসে কেবল টুইট করা ছাড়া আর কিছুই করার ছিল না বাবুলের। সূত্রের খবর, বাবুল সুপ্রিয়র বর্তমান সময়কার কাজকর্ম খুশি নয় কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তাছাড়া বাবুল নিজেই যোগাযোগ কমিয়ে দিয়েছিলেন।