Friday, June 14, 2024
দেশ

ভারতে চালু হচ্ছে বৈদ্যুতিক এয়ার ট্যাক্সি

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে দেশের জনসংখ্যা, সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে যানজট। এবার সেই সমস্যা এড়াতে বৈদ্যুতিক এয়ার ট্যাক্সি সার্ভিস চালু হতে চলেছে ভারতে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বৈদ্যুতিক আকাশযান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান আর্চার এভিয়েশনের সঙ্গে যৌথভাবে এই বৈদ্যুতিক এয়ার ট্যাক্সি সার্ভিস চালু করা হবে। ২০২৬ সাল সালের মধ্যে ভারতে এই সার্ভিস চালু করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে আর্চার এভিয়েশন।

দিল্লি ও মুম্বাইয়ের মতো যানজটে আক্রান্ত মহানগরীগুলোতে এই এয়ার ট্যাক্সি সার্ভিস জনপ্রিয় হতে পারে। বিশেষ করে দিল্লির মতো বড় শহরগুলো ব্যাপক বায়ুদূষণ জনিত সমস্যার শিকার। এক্ষেত্রে পরিবেশ বান্ধব বৈদ্যুতিক এয়ার ট্যাক্সি সার্ভিস দূষণ কমাতে কার্যকারী ভূমিকা রাখবে।

রাস্তায় চলা প্রচলিত ট্যাক্সির তুলনায় এই বৈদ্যুতিক এয়ার ট্যাক্সি সার্ভিস সাশ্রয়ী হবে বলে জানিয়েছে উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান। আর্চার এভিয়েশন মূলত ‘ইলেক্ট্রিক ভার্টিক্যাল টেকঅফ অ্যান্ড ল্যান্ডি’ (ইভিটোল) জাতীয় আকাশযান নির্মাণ করে থাকে। বিশ্বের ঘনবসতিপূর্ণ নগরীগুলোতে ভবিষ্যতে এই ধরনের আকাশ যান ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আর্চার এভিয়েশন এরই মধ্যে ‘মিডনাইট ই’ নামে একটি এয়ার টেক্সি তৈরি করেছে। আকাশযানটি ৪ জন যাত্রী ও একজন পাইলট নিয়ে ১০০ মাইল দূরত্ব অতিক্রম করতে পারে।

দিল্লি, মুম্বাই ও বেঙ্গালুরুতে আপাতত এই ধরনের ২০০ আকাশ যান নিয়ে যাত্রা শুরু করতে পারে এয়ার ট্যাক্সি সার্ভিস। উদ্যোক্তাদের দাবি, দিল্লিতে একটি গাড়ির যেখানে সময় লাগে দেড়ঘণ্টা, সেখানে এয়ার ট্যাক্সির সময় লাগবে মাত্র ৭ মিনিট।

যাত্রী পরিবহনের পাশাপাশি কার্গোপরিবহন, জরুরি স্বাস্থ্যসেবা সহ অন্যান্য পরিষেবাতেও এই বৈদ্যুতিক আকাশযান ব্যবহারের পরিকল্পনা করছে ইন্টারগ্লোব এন্টারপ্রাইজ।

শ্রীঘ্রই সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে এই এয়ার ট্যাক্সি সার্ভিস চালু হবে।