Tuesday, June 18, 2024
দেশ

রাতভর ‘বাজির তান্ডব’, দীপাবলীর পরেই বাতাসে বিষকণা, এক নজরে দেখে নিন বায়ুর মান

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: দীপাবলি মানেই আলোর উৎসব। গোটা দেশ আলোর উৎসবে মেতে ওঠে। কিন্তু আলোর থেকে শব্দবাজির তান্ডবই যেন বেশি লক্ষ্য করা যায়। দীপাবলিতে দূষণের কবলে রাজধানী দিল্লি। বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে দিল্লিতে বাতাসের গুণমান খারাপ হতে থাকে। সন্ধ্যার পরে পরিস্থিতি সবথেকে খারাপ হয়।

জানা গেছে, শুক্রবার সকালে নয়ডায় বায়ুর গুণমান সূচক ৫০০ ছাড়িয়ে যায়। পুসা রোড সংলগ্ন এলাকায় বাতাসের গুণমান সূচক গিয়ে দাঁড়ায় ৫০৫। ফরিদাবাদে ৪২৪, গাজিয়াবাদে ৪৪২, গুরগাঁওয়ে ৪২৩।

উল্লেখ্য, বাতাসের গুণমান সূচক ০-৫০ এর মধ্যে থাকলে সেটি ভালো বলে গণ্য হয়। ইনন্ডেক্স ৫১-১০০ থাকলে সেটিকে সন্তোষ জনক বলা হয়। ১০১-২০০ মাঝারি বলে গণ্য হয়। বায়ুর মান ২০১-৩০০ থাকলে সেটাকে খারাপ বলে গণ্য করা হয়। ৩০১-৪০০ হলে অত্যন্ত খারাপ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সেখানে দিল্লির বাতাসের গুণমান সূচক ৫০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে।

রাতভর দেদার শব্দবাজি এবং আতশবাজি পোড়ানোর কারণেই এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি এতটাই বিপদজনক যে এক হাত দূরের জিনিসও দেখা যাচ্ছে না। পুরো ধোঁয়াশায় ঢেকে গিয়েছে গোটা রাজধানী। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আগে থেকেই আতশবাজি পোড়ানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। কিন্তু সে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় দেদারে বিক্রি হয় আতশবাজি।

কী পরিস্থিতি শহর কলকাতার?

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাতের দিকে যাদবপুর, বালিগঞ্জ, জোড়াসাঁকো, বিধাননগর এবং রবীন্দ্র সরোবর স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় বায়ুদূষণ মারাত্মক আকার নেয়। এ সময় বাতাসে দূষণের মান ছিল পিএম ২.‌৫ এবং পিএম ১০। যা স্বাস্থ্যের পক্ষের ক্ষতিকারক।