Tuesday, May 21, 2024
দেশ

বিক্ষোভের মুখে ঢাকল বেকারির ‘করাচি’ শব্দ, টাঙানো হল জাতীয় পতাকা

বেঙ্গালুরু: পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর গোটা দেশ ফুঁসছে পাকিস্থানের বিরুদ্ধে। ক্রিকেট থেকে ব্যবসা বিভিন্ন ক্ষেত্রে পাকিস্তানকে নিষিদ্ধ ঘোষণার দাবি ওঠে। সেই রেশ গিয়ে পড়ে বেঙ্গালুরুর করাচি বেকারির আউটলেটে।

শুক্রবার বেঙ্গালুরুর ইন্দিরা নগরে ‘করাচি বেকারি’র একটি দোকানের সামনে বিক্ষোভ দেখায় এক দল লোকজন। দাবি তোলেন, হয় নাম বদলানো হোক, নয়তো দোকানটি বন্ধ করে দেওয়া হোক। বিক্ষোভের জেরে সাইনবোর্ডের যে অংশে ‘করাচি’ শব্দটি লেখা আছে, সেটি একটি ফেস্টুন দিয়ে ঢেকে দেন দোকানের মালিকপক্ষ। সাইনবোর্ডের কিছুটা উপরে একটি তেরঙ্গাও লাগানো হয়।

ঘটনার কথা স্বীকার করেছেন বেঙ্গালুরু পুলিশও। দোকানের কর্মীরা জানিয়েছেন, দোকানের ‘পাকিস্তানি’ নামের জন্য তাঁদেরও হুমকির মুখে পড়তে হচ্ছে। পরে তারা সংস্থা বিবৃতি দেয়, আমাদের নামে করাচি আছে বলে অনেকে মনে করেন আমরা পাকিস্তান থেকে এসেছি। কিন্তু তা নয়। আমরা মনেপ্রাণে ভারতীয়। আমাদের মালিক হিন্দু। আমরা ৫৩ বছর ধরে করাচি নামটা ব্যবহার করে আসছি।

প্রসঙ্গত, করাচি বেকারির প্রতিষ্ঠাতা খানচন্দ রামনামি। দেশভাগের পর হায়দরাবাদে চলে এসেছিলেন তিনি। ১৯৫২ সালে তিনিই ‘করাচি বেকারি’ তৈরি করেন। আজ যার খ্যাতি বিশ্বজোড়া!