Monday, May 27, 2024
দেশ

প্রয়াত হলেন ১০৭ বছরের ইউটিউবার ‘মস্তানাম্মা’

হায়দরাবাদ: প্রয়াত হলেন বিশ্বের প্রবীণতম ‘ইউটিউবার’, অন্ধ্রপ্রদেশের জনপ্রিয় রাঁধুনী ‘মস্তানাম্মা’। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ১০৭ বছর। ইউটিউবে নিজের রান্নার ভিডিও আপলোড করে বিখ্যাত হয়েছিলেন তিনি। তবে হঠাৎ কেন তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে নতুন ভিডিও আপলোড করা হচ্ছে না? তা নিয়ে ভক্তরা প্রশ্ন করতেই সামনে আসে মস্তানাম্মার মৃত্যুর খবর। তাঁর ইউটিউব হ্যান্ডল ম্যানেজার মিডিয়া পার্সন কে লক্ষণ ও শ্রীনাথ রেড্ডি তাঁর মৃত্যুর খবর জানান।

২০১৬ সালে প্রখম মস্তানাম্মার বেগুন কারি রান্নার ভিডিও আপলোড করেন লক্ষণ। সেই ভিডিও ৭৫ হাজার ভিউ হতেই পর পর অভিনব সব রেসিপির ভিডিও আপলোড করতে থাকেন লক্ষণ। কান্ট্রি ফুডস নামের ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার এই মুহূর্তে ১২ লক্ষেরও বেশি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় রকমারি নানা পদের রান্নার ভিডিও শেয়ার করে অনেকে বেশ জনপ্রিয়ও হচ্ছেন বর্তমান সময়ে। কিন্তু তাই বলে ১০৭ বছর বয়সে সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয় রাঁধুনী হয়ে ওঠা কি চাট্টিখানি কথা! তবে তিনি পেরেছিলেন। অন্ধ্রপ্রদেশের গুরিওয়াড়া গ্রামের ১০৭ বছর বয়সী বৃদ্ধা মস্তানাম্মা পেরেছিলেন তাঁর রান্নার জাদু নিজের ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতে এ যুগের হাজার হাজার যুবক-যুবতির কাছে। লক্ষ লক্ষ মানুষ তাঁর রান্নার ভক্ত।

গ্রামের ক্ষেতে বসে মস্তানাম্মা রান্না করেন নানান পদ। কখনও ফ্রায়েড চিলি চিকেন, কখনও বা চিকেন ড্রামস্টিক। মাছ-চিকেন বা কাঁঠালের বিরিয়ানিও আছে সেই তালিকায়। কখনও বা আবার শুয়োরের মাথা তো কখনও ভেড়ার মাথা, কখনও তরমুজ দিয়ে চিকেন তো কখনও ঝিনুকের কারি। নানা রকম অভিনব রেসিপি দিয়েই জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে কান্ট্রি ফুড ইউটিউব চ্যানেলের। কেবল মস্তানাম্মার রান্নার ভিডিও নিয়মিত দেখেন ৩ লাখ মানুষ। মস্তানাম্মা আর নেই। তবে তাঁর ইউটিউব চ্যানেল ‘কান্ট্রি ফুড’ কিন্তু এখনও রয়েছে। যেখানে মাস্তানাম্মার রান্নার প্রায় ৭৫হাজার ভিডিও আছে। আপনি চাইলে সেখান থেকে শিখতে পারেন রকমারি নানা পদের রান্নার কৌশল।