Sunday, April 21, 2024
আন্তর্জাতিক

২৪ বছরের হিমায়িত মানব ভ্রণে নবজাতকের জন্ম

নিউ ইয়র্ক, ২০ ডিসেম্বর: বিশ্বের সবচেয়ে পুরনো হিমায়িত মানব ভ্রণ দিয়ে নবজাতকের জন্ম হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসি অঙ্গরাজ্যে।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় ভ্রণ অনুদান কেন্দ্রের (এনইডিসি) মেডিকেল পরিচালক ডা. জেফরি কিনানা জানান, ২৫ নভেম্বর ইমা রেন গিবসন নামে ওই নবজাতকের জন্ম হয়।

১৯৯২ সালের ১৪ অক্টোবর তার ভ্রণ ফ্রিজে রাখা হয়েছিল। টিনা এবং বেঞ্জামিন গিবসন দম্পতির সন্তান ইমা। টেনেসির পূর্বাঞ্চলের বাসিন্দা তারা। চলতি বছরের মার্চে ইমার হিমায়িত ভ্রণ তার ২৬ বছর বয়সী মা টিনা জরায়ুতে একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে প্রতিস্থাপন করে এনইডিসি। ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন (আইভিএফ) পদ্ধতির মাধ্যমে ভ্রণ ফ্রিজে সংরক্ষণ করা হয় এবং নিঃসন্তান দম্পতিদের প্রদান করা হয়।

টিনার স্বামী বেঞ্জামিন গিবসন সিস্টিক ফিব্রোসিসে আক্রান্ত। এর ফলে তার বন্ধ্যাত্ব দেখা দেয়। ভ্রণ গ্রহণের আগে শিশু দত্তক নেয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন টিনা ও গিবসন দম্পতি। ১৩ মার্চ এনইডিসির ল্যাব পরিচালক ক্যারল সামারফেল্ট তাদের একটি ভ্রণের ছবি দেখান। যেটির বয়স টিনার প্রায় সমান।

সেদিনের মুহূর্তের কথা মনে করে টিনা বলছিলেন, ‘আমি আমার স্বামীকে বলেছিলাম, তুমি বুঝতে পারছ আমার বয়স ২৫। এই ভ্রণ আর আমি ভালো বন্ধু হতে পারি।’

২৬ বছর বয়সী টিনা বলেন, ‘আমি শুধু একটি সন্তান চেয়েছিলাম। এটি বিশ্ব রেকর্ড গড়বে কি গড়বে না এই বিষয়ে আমার একদমই চিন্তা ছিল না।’

ল্যাব পরিচালক ক্যারল সামারফেল্ট বলেন, এত বছরের পুরনো ভ্রণ শিশুর জন্ম- এই বিষয়টি খুব রোমাঞ্চকর। এর আগে ২০ বছরের পুরনো ভ্রণ দিয়ে বাচ্চা জন্ম নিয়েছিল। জন্মের সময় ইমার ওজন প্রায় তিন কেজি এবং তার উচ্চতা ছিল ২০ ইঞ্চি। একেবারে সুস্থ শরীরে ইমা পৃথিবীর আলোর মুখ দেখেছে।

টিনা জানান, ‘আমরা খুবই কৃতজ্ঞ এবং আনন্দিত। ইমা সৃষ্টিকর্তার পক্ষ থেকে আমাদের জন্য বড় দিনের অমূল্য উপহার। আমরা সত্যিই অনেক খুশি।

বেঞ্জামিন গিবসন বলেন, ‘আমার মেয়ে ইমার জন্ম একটি মিষ্টি অলৌকিক ঘটনা। এতদিন ফ্রিজে থাকার পরও ইমা দেখতে অনেক সুন্দর।’ সিএনএন