Thursday, April 25, 2024
দেশ

সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়, ‘অপ্রাপ্তবয়স্ক স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক ধর্ষণের শামিল’

নয়াদিল্লি:  ১৮ বছরের কম বয়সের নাবালিকা স্ত্রীর সঙ্গে যৌনমিলন ধর্ষণ হিসেবেই গণ্য হবে এবং তা অপরাধ। ঐতিহাসিক রায় সুপ্রিম কোর্টের। সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, এখন থেকে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়স পর্যন্ত নাবালিকা স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করলে তা হবে ধর্ষণের সামিল।

ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৫ ধারায় উল্লেখিত ১৮ বছরের কম বয়সি স্ত্রীর সম্মতিতে যৌন সম্পর্ক স্থাপনে পুরুষের ছাড় ছিল। সরকার ও সংসদ কী ভাবে ১৮ বছরের নিচের স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্কে ছাড় দেয়, যেখানে একটি মেয়ের ১৮ বছর বয়সই প্রাপ্তবয়স্ক হিসেবে গণ্য হয়? এই প্রশ্নে সুপ্রিম কোর্টে একটি পিটিশন দাখিল করা হয়।

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি মদন বি লকুরের বেঞ্চ এ দিন রায়ে জানিয়ে দেয়, নাবালিকা স্ত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক সব সময়ই ধর্ষণ। কারণ, এতে নাবালিকার মৌলিক অধিকার ক্ষুণ্ণ হয়।

সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, ধর্ষণ আইনে যে ব্যতিক্রম রয়েছে তা বৈষম্যমূলক ও একতরফা। ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সের বিবাহিতা মেয়েদের এর বাইরে রাখাটা অসাংবিধানিক বলে মন্তব্য করেছে সর্বোচ্চ আদালত। কারন, যৌন সম্পর্কে সম্মতির বয়স ১৮। এক্ষেত্রে বিবাহিতা নাবালিকাদের ধর্ষণের আওতার বাইরে রাখা যায় না।

সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, কোনও ব্যক্তি যদি তার ১৮ বছরের কম বয়সের স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করে তবে তা অপরাধ। নাবালিকা স্ত্রী এক বছরের মধ্যে স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করতে পারবে।