Friday, May 24, 2024
আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশের কক্সবাজারে বৌদ্ধ মন্দিরে আগুন ধরিয়ে দিল দুবৃর্ত্তরা

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: বাংলাদেশের কক্সবাজারের রামু উপজেলায় একটি বৌদ্ধ মন্দিরে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে পুড়ে গেছে মন্দিরের কাঠের সিঁড়ি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুবৃর্ত্তরা ইউ চিট সান (রাখাইন) রামু বৌদ্ধ মন্দিরের মূল অংশে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করলেও তাৎক্ষণিকভাবে আগুন নিভিয়ে ফেলা হয়।

মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি মং কেউ বলেন, ৫ জানুয়ারি দিনগত রাত ২টার দিকে মন্দিরে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করে দুবৃর্ত্তরা। তবে ভক্ত ও স্থানীয়দের তাৎক্ষণিক প্রচেষ্টায় কাঠের তৈরি মন্দিরটি সম্পূর্ণ পুড়ে যাওয়া থেকে রক্ষা পেয়েছে।’

‘একটি ছোট সিঁড়ির নিচে আগুন দেওয়া হয়েছিল। কাঠ পোড়ার শব্দ শুনে মন্দিরে থাকা ভক্তরা ঘুম থেকে উঠে আগুন নেভাতে শুরু করেন। পরে স্থানীয়রা তাদের সাথে যোগ দেয় এবং আগুন পুরোপুরি নিভিয়ে ফেলে। ছোট সিঁড়িটি পুড়ে গেছে’, বলেন তিনি।

সিসিটিভি ফুটেজে কাপড় দিয়ে মুখ ঢাকা এক ব্যক্তিকে মন্দিরে আগুন লাগানোর পর কমপ্লেক্স থেকে বেরিয়ে যেতে দেখা গেছে বলেও জানান তিনি।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ।

।।সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে তাঁত কারখানায় আগুন।।

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে তাঁত কারখানা ও গদি ঘরে রহস্যজনক অগ্নিকাণ্ডে প্রায় অর্ধ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

০৫ জানুয়ারি আনুমানিক রাত ৯টার দিকে বেলকুচি পৌর এলাকার চন্দনগাঁতি (বসুন্ধরা) সাহা পাড়া গ্রামের উত্তম সাহার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। উত্তম সাহা মৃত নরেশ সাহার ছেলে। তবে কিভাবে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে তার সঠিক কারণ জানা যায়নি।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, আনুমানিক রাত ৯টার দিকে হঠাৎ নরেশ সাহার বাড়ির তাঁত ফ্যাক্টরি ও কাপড়ের গদি ঘরে অগ্নিকান্ডের লেলিহান শিখা দেখতে পেয়ে তারা দ্রুত ঘটনাস্থলে এগিয়ে যান। তবে প্রাথমিক পর্যায়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নেভাতে চেষ্টা করলেও তা সম্ভব হয়নি। পরে বেলকুচি ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সকে ফোন করা হয়। ফায়ার সার্ভিসের বেলকুচি ইউনিটের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় ঘন্টা ব্যাপি চেষ্টার করার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন। এতে প্রায় চল্লিশ থেকে পঞ্চাশ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে বলে তারা জানান।

এব্যাপারে বেলকুচি থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনিছুর রহমান জানান, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয়েছে। যেহেতু এটি একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ক্ষতি তো হয়েছে। তবে এখনই কত টাকার ক্ষতি হয়েছে তা বলা যাচ্ছে না। এটি তদন্ত করে জানা যাবে।

।।বালিয়াকান্দি উপজেলায় ভোট কেন্দ্রে বহড়া থাকায় গ্রাম পুলিশের লাশ উদ্ধার।।

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলায় ভোটকেন্দ্রে পাহারায় থাকা রনজিৎ কুমার দে (৪৫) নামে এক গ্রাম পুলিশ সদস্যের লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

 ৬ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৮ টায় পুলিশ বালিয়াকান্দি উপজেলার চর আরকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে কাঠ বাগান থেকে লাশ উদ্ধার করে।  

নিহত রনজিৎ কুমার দে বালিয়াকান্দি উপজেলার চরআড়কান্দি গ্রামের মিতা শিবেন্দ্রনাথ দের ছেলে।

এলাকাবাসী জানিয়েছেন, গ্রাম পুলিশ রনজিৎ কুমার দে বালিয়াকান্দি উপজেলার চর আড়কান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের ভোট কেন্দ্র পাহারা দেওয়ার জন্য আসে। সাথে বিদ্যালয়ের নাইটগার্ড মোঃ ইউসুফ হোসেন ছিল। শুক্রবার রাত সাড়ে ৩ টার দিকে গ্রাম পুলিশ রনজিৎ প্রকৃতির ডাকে সারা দেওয়ার জন্য স্কুলের পিছনে কাঠবাগানে যায়। প্রায় আধাঘন্টা পাড় হয়ে গেলেও ফিরে না আসায় নাইটগার্ড ডাকাডাকি করতে থাকে। সারা না দেওয়ায় বিষয়টি নাইটগার্ড তার স্কুলের ম্যাডাম ও স্থানীয় কিরন মেম্বারকে ফোনে জানায়। পরে শনিবার সকাল ৫ টার দিকে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বিদ্যালয়ের টয়লেটের পাশে কাঠ বাগানে গ্রাম পুলিশের লাশ পাওয়া যায়।

ধারণা করা হচ্ছে বাহিরে আসলে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা গ্রাম পুলিশ রনজিৎ কুমারকে গলায় মাফলার পেঁচিয়ে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে। লাশ পুলিশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজবাড়ী মর্গে প্রেরণ করেছে।  

বালিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, গ্রাম পুলিশ সদস্যকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।