Friday, April 12, 2024
দেশ

রাম রহিমের পর এবার সচ্চিদানন্দ

লক্ষৌ: কথিত ধর্মগুরু রাম রহিমের পর এবার উত্তরপ্রদেশের বাস্তি জেলার একটি আশ্রমের সাধু স্বামী সচ্চিদানন্দের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার ওই আশ্রমের চার নারী সাধ্বী স্থানীয় থানায় এ অভিযোগ করেছেন।

তাঁদের অভিযোগ, আশ্রমের প্রধান স্বামী সচ্চিদানন্দসহ তিনজন সাধু মিলে ওই চার সাধ্বীকে দশ দিন ধরে আশ্রমের একটি নির্জন কক্ষে আটকে রেখে গণধর্ষণ করেন। আর এ কাজে সহায়তা করতেন আশ্রমেরই কয়েকজন সাধ্বী।

ওই চার সেবিকা পুলিশের কাছে আরও অভিযোগ করেন, দুই সেবিকা বিভিন্ন লোভ দেখিয়ে কিশোরী ও তরুণীদের আশ্রমে নিয়ে আসতেন। এরপরই তাঁদের ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালানো হতো। প্রায় প্রতি রাতেই ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের শিকার হতে হতো আশ্রমের সেবিকাদের। বাধা দিলে কখনো কখনো গণধর্ষণেরও শিকার হতে হতো তাঁদের।

এই সাধুরা আশ্রমে মহন্ত নামে পরিচিত। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পরপরই আত্মগোপনে গেছেন স্বামী সচ্চিদানন্দ ও তাঁর দুই সহযোগী প্রচেতানন্দ ও বিশ্বানন্দ।

বাস্তি জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) জানিয়েছেন, ওই চার নারীর মেডিকেল পরীক্ষা করানো হয়েছে। তাদের শরীরের নানা ক্ষতচিহ্ন পাওয়া গেছে। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে।

এই আশ্রমের স্বামী সচ্চিদানন্দের অনেক শিষ্য দিল্লি, মুম্বাই, মধ্যপ্রদেশ, বিহার এবং ছত্রিশগড় ছড়িয়ে রয়েছে। এসব এলাকায় সচ্চিনান্দের ভক্তও রয়েছে প্রচুর। এর আগে গত ২৫ আগস্ট ভারতের আরেক ধর্মগুরু রাম রহিম ইনসানকে ধর্ষণের দায়ে গ্রেপ্তারের পর উত্তাল হয়ে উঠেছিল হরিয়ানার পাঁচকুলা ও সিরসা। এ সময় সংঘর্ষে হরিয়ানা ও পাঞ্জাব মিলিয়ে ৪১ জন প্রাণ হারিয়েছিল। রাম-রহিম সিং এখন রয়েছেন রোহতক কারাগারে।