Thursday, April 25, 2024
দেশ

রোহিঙ্গা মুসলিমদের আশ্রয় দেওয়ার দাবিতে কলকাতায় বিশাল মিছিল, অবরূদ্ধ শহর

ভারতে পালিয়ে আসা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিমদের আশ্রয় দেওয়ার দাবিতে কলকাতায় মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছে বিভিন্ন মুসলিম সংগঠন। একই সঙ্গে সংগঠনগুলো মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিমদের গণহত্যা অবিলম্বে বন্ধের দাবি জানিয়েছে। এই দাবিকে সমর্থন জানিয়ে সমাবেশে যোগ দেয় বাম ও কংগ্রেসও।

সোমবার বিকেলে কলকাতার পার্ক সার্কাস থেকে এই মিছিল শুরু হয়। মিছিল শেষে ধর্মতলার রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ে প্রতিবাদ সভা হয়। বিশাল মিছিলের জন্যে সপ্তাহের প্রথম দিনে ব্যস্ত সময়ে তীব্র যানজট দেখা যায়। চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় নিত্যযাত্রীদের। এ সময় প্রতিবাদকারীরা কলকাতায় মিয়ানমার কনস্যুলেট অফিসে স্মারকলিপি জমা দিয়েছেন।

মিছিলের একাংশ

সমাবেশে রোহিঙ্গাদের ঘাড়ধাক্কা দিলে নরেন্দ্র মোদীর সরকারকেও ঘাড়ধাক্কা দেওয়া হবে স্লোগান উঠে। মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের এক প্রতিনিধিকেও মঞ্চে উপস্থিত করা হয়। তিনি মিয়ানমারে তাদেরকে কী পরিস্থিতির শিকার হতে হয়েছে, সে অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন।

বিক্ষোভকারীদের স্লোগানে এটাও ছিল যে, বিশ্বশান্তির নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত নেত্রী অং সান সু চি কী করে রোহিঙ্গাদের এই নির্বিচার হত্যা হতে দিচ্ছেন ?

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী বললেন, ‘এই আন্দোলনকে পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি। এটা মুসলমানদের সমস্যা বলে এখানে আসিনি। এটা মানবতার লজ্জা। মানবতার জন্যই এখানে এসেছি।’ একই সুর শোনা যায় সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তীর গলাতেও।

প্রতিবাদ সভায় জামায়াতে ইসলামি হিন্দের রাজ্য সভাপতি মোহাম্মদ নুরুদ্দিন বলেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা গণহত্যা অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। ভারতে যাঁরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন, তাঁদের পুনর্বাসন করতে হবে। এখানে বসবাসের অধিকার দিতে হবে। তিনি রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেওয়ারও দাবি জানিয়েছেন।