Saturday, June 15, 2024
Latestরাজ্য​

‘অরাজকতা চলতে থাকলে পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতির শাসন জারি করা হবে’

কলকাতা: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গ। কোথাও রেললাইন রুখে, কোথাও মহাসড়কে টায়ার পুড়িয়ে প্রতিবাদ করেছে বাংলাদেশি মুসলিম অনুপ্রবেশকারীরা, এমনটাই অভিযোগ বিজেপির জাতীয় সচিব রাহুল সিনহার।  শনিবার লালগোলার কৃষ্ণপুর স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রেনে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা।

এ ধরনের পরিস্থিতি চলতে থাকলে পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন ছাড়া অন্য পথ খোলা থাকবে না বলে মন্তব্য করলেন রাহুল সিনহা। এই অশান্তির পিছনে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল নেতাদের দায়ী করলেন তিনি। রাহুল সিনহা বলেন, রাজ্যে এমন পরিস্থিতি যদি অব্যাহত থাকে তবে বিজেপি রাজ্যে রাষ্ট্রপতির শাসন লাগুর চেষ্টা করবে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংখ্যালঘু ‘তোষণের নীতি’র জন্য এই পরিস্থিতি বলে দাবি করেছেন রাহুল সিনহা। তিনি বলেন, এই তোষণের ফলেই পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি, রাহুল সিনহার অভিযোগ, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল কার্যকর করার বিষয়ে রাজ্যে ছড়িয়ে পড়া হিংসাত্মক পরিস্থিতি সামলানোর জন্য মুখ্যমন্ত্রী খুব কমই ভূমিকা নিয়েছেন।

রাহুল সিনহা বলেন, বিজেপি কখনওই রাষ্ট্রপতির শাসন সমর্থন করে না। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গে যদি এই সহিংসতা অব্যাহত থাকে, তাহলে রাজ্যে রাষ্ট্রপতির শাসন চাইবে বিজেপি। পুরো রাজ্য যখন জ্বলছে, তখন মমতার সরকার নীরব দর্শকের ভূমিকায় রয়েছে।