Tuesday, June 18, 2024
দেশ

আসামের ৯০ লাখ বাংলাভাষী মুসলমানের কী হবে?

দিসপুর: আতঙ্কে রয়েছেন আসামে বসবাসকারী বাংলাভাষী ৯০ লাখ মুসলমান। সেখানে জাতীয় নাগরিক পঞ্জির (এনআরসি) হালনাগাদ করার কাজ শেষ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। সুপ্রিম কোর্টের নজরদারিতে চলা এই প্রক্রিয়া আসামে বসবাসকারী ভারতীয় নাগরিকদের নাম তালিকাভুক্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই শেষ হবে। এনআরসিতে বিদেশী হিসেবে চিহ্নিত হলে তাদের ভাগ্যে কি ঘটতে চলেছে সে বিষয়ে কোন ধারণা নেই তাদের।

এনআরসি-র রাজ্য কো-অর্ডিনেটর প্রতীক হাজেলাকে উদ্ধৃত করে গণমাধ্যমে লেখা হয়েছিল যে, প্রায় ৪৮ লাখ মানুষ, যারা আসামে বসবাস করছেন, তারা নিজেদের ভারতীয় নাগরিকত্বের প্রমাণ দিতে ব্যর্থ হয়েছেন।

বর্তমানে আসামের বাংলাভাষী মুসলমানদের মধ্যে যে প্রশ্ন বিরাজ করছে তা হচ্ছে, এনআরসি শেষে যেসব মানুষকে ‘বিদেশি’ বলে চিহ্নিত করা হবে, তাহলে তাদের ভবিষ্যৎ কী!

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যেহেতু বিদেশি বা বাংলাদেশি বলে চিহ্নিত ব্যক্তিদের ফেরত পাঠানোর কোনো চুক্তি নেই। তাহলে যেসব মানুষ কয়েক প্রজন্ম ধরে ভারতকেই নিজেদের দেশ বলে মনে করে এসেছেন, তাদের নিয়ে কী করা হবে! সরকারের তরফ থেকে এ ব্যাপারে কোনো ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

আসামের মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা হিমন্ত বিশ্ব শর্মা গত ডিসেম্বর মাসে বলেছিলেন, আসামে অবৈধভাবে বসবাসকারী বাংলাদেশিদের চিহ্নিত করাই এর উদ্দেশ্য। এদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে। তবে বাংলাভাষী হিন্দুরা অসমীয়া মানুষদের সঙ্গেই থাকতে পারবেন। কেন্দ্রীয় সরকারও প্রত্যেক হিন্দুকে ভারতীয় হওয়ার একটা অধিকার দেওয়ার জন্য বিল পেশ করেছিল। তবে আসামের বেশির ভাগ নাগরিক বিলটির বিরোধিতা করছেন।