Friday, April 12, 2024
কলকাতা

ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নয়ন চায় পাক সেনা প্রধান

ইসলামাবাদ: ভারতের সঙ্গে আলোচনার পক্ষে সওয়াল পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার। পাক পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সেনেটে নিরাপত্তা ও আঞ্চলিক ইস্যুতে ব্যতিক্রমী সুর শোনা গিয়েছে বাজওয়ার কথায়। জেনারেল বাজওয়া ভারতের সঙ্গে শান্তি স্থাপন প্রক্রিয়া সমর্থন করেন বলে বিবিসি উর্দুর খবর। তাঁকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, যু্দ্ধের পরিবর্তে আলোচনার পথেই ভারতের সঙ্গে বিরোধ মিটিয়ে ফেলতে পারি আমরা। সরকার ভারতের সঙ্গে আলোচনার সিদ্ধান্ত নিলে সেনাবাহিনী তা সমর্থন করবে। তাঁর বাহিনী ভারত, আফগানিস্তানসহ সব প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক চায় বলেও জানান বাজওয়া।

পাকিস্তানের ঘরোয়া রাজনীতিতে, সরকারি পলিসি নির্ধারণে বড় প্রভাব থাকে সেনাবাহিনীর। প্রতিবেশী দেশটির স্বাধীনতাপ্রাপ্তির পর গত ৭০ বছরে বেশিরভাগ সময়ই শাসন করেছে তারা।

গত ৬ বছরে এই প্রথম দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা পরিস্থিতি সম্পর্কে আইনপ্রণেতাদের অবহিত করতে পাক পার্লামেন্টে এল পাক সেনা কর্তৃপক্ষ। পাক সেনাপ্রধান বাদে ওই দলে ছিলেন ডিরেক্টর জেনারেল অব মিলিটারি অপারেশনস মেজর জেনাকেল সাহির সামশাদ মির্জা, আইএসআইয়ের ডিজি নাভিদ মুখতার ও ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশনস-এর ডিজি মেজর জেনারেল আসিফ গফুর। ২০১১-র মে মাসে শেষ পাক পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনে এসে আবোতাবাদে মার্কিন অভিযানে ওসামা বিন লাদেনে খতম হওয়া সম্পর্কে জানিয়েছিলেন সে সময়কার সেনাপ্রধান জেনারেল আসফাক পারভেজ কিয়ানি ও তত্কালীন আইএসআই প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আহমেদ সুজা পাশা।

এদিকে বাজওয়ার বক্তব্য প্রসঙ্গে ভারতের বিদেশমন্ত্রকের বক্তব্য, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ভাল করতে হলে ইসলামাবাদকে তাদের মাটি থেকে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ চালিয়ে যাওয়া গোষ্ঠীগুলিকে নির্মূল করতে ব্যবস্থা নিতে হবে। বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রভীশ কুমার বলেন, পাকিস্তানকে সন্ত্রাসবাদ নিয়ে আমাদের উদ্বেগ বুঝতে হবে। আমরা বারবার ওদের বলেছি, পাক মাটিতে সক্রিয় সন্ত্রাসবাদীদের নির্মূল করতে হবে। বন্ধুত্ব চাঙ্গা করায় সিরিয়াস হলে ওদের এ ব্যাপারে তত্পর হতে হবে। যে কোনও পড়শীর মতো আমরাও ঘরের পাশের দেশের সঙ্গে ভাল সম্পর্ক চাই।