Monday, June 24, 2024
আন্তর্জাতিক

Biden-Jinping: দীর্ঘ সাত মাস পর বাইডেন-জিনপিং ফোনালাপ, কি নিয়ে কথা বললেন তাঁরা?

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: করোনার উৎস নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে এখনও। প্রাক্তন আমেরিকান (US) প্রেসিডেন্ট বার বার চিনকেই (China) এই ব্যাপারে দোষী করে থাকলেও, সেই পথের আশপাশ দিয়েও যাচ্ছেন না জো বাইডেন (Joe Biden)। আপাতত তিনি চিনা প্রেসিডেন্টের (Xi Jinping) সঙ্গে কথপোকথনের (Biden-Jinping) মধ্যে দিয়েই এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করছেন।

করোনা ভাইরাসের উৎস কোথায়? কিভাবেই বা ছড়িয়ে পড়ল এই মারণ ভাইরাস? এই সমস্ত নিয়েই দীর্ঘক্ষণ আলোচনা হয় দুই দেশের প্রেসিডেন্টের মধ্যে। ট্রাম্প শাসনকালে চিনকে একপ্রকার কাঠগোড়ায় দাঁড় করিয়েছিল আমেরিকা। করোনা ভাইরাসের পেছনে মাস্টারমাইন্ড হিসেবে চিহ্নিত করা হয় চিন সরকারকে। ট্রাম্প জামানায় এই ভাইরাসকে কেন্দ্র করেই এই দুই শক্তিশালী দেশের সংঘাত তুঙ্গে ওঠে।

তবে জো বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর থেকেই এই বিষয়ে সহিষ্ণু হন। চিনা নববর্ষের সময় দীর্ঘ ফোনালাপ হয় দুই দেশের প্রেসিডেন্টের মধ্যে। সেবারও মূল আলোচ্য বিষয় ছিল করোনা। পেন্টাগন সূত্রে খবর, করোনা বিষয়ে তদন্ত চালানোর কথা হয়েছে দুই রাষ্ট্র নেতার মধ্যে। সেইসঙ্গে উহানের ল্যাবরেটরি থেকেই এই ভাইরাস ছড়িয়ে ছিল কি না সেই তদন্তও হবে বলেই আশ্বাস দিয়েছেন শি জিনপিং। তবে এবার করোনার পাশাপাশি আরও কিছু জরুরি বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে এমনটাই বিবৃতি দিয়েছে হোয়াইট হাউস।

উল্লেখ্য, ২০১৯ ডিসেম্বরে প্রথম চিনের উহান প্রদেশে করোনা ভাইরাসের হদিশ মেলে। এবং তার মাত্র কয়েক মাসের মধ্যেই গোটা দেশে ছড়িয়ে যায় এই মারণ ভাইরাস। এই ভাইরাসের সংক্রমণে আতঙ্কিত হয়েছিল আমেরিকার মত প্রথম সারির দেশও। এবং এর পরেই আমেরিকার সমস্ত রোষ গিয়ে পরে চীনের ওপর। ট্রাম্প সরকারের নির্দেশে মার্কিন গোয়েন্দারা চীনের উহান প্রদেশে গোপন তল্লাশিও চালায়।

Joe Biden talks to Xi Jinping after 7 months

Read More News:

Afghanistan: ডিগ্রি ছাড়াই ক্ষমতায় এসেছি, তাই মাস্টার্স- পিএইচডি মূল্যহীন: তালিবান শিক্ষামন্ত্রী