Monday, June 24, 2024
রাজ্য​

বর্ধমান স্টেশনের নাম বদল করছে কেন্দ্র, স্বাধীনতা সংগ্রামীর নামে হবে নামকরণ

পাটনা: এবার বর্ধমান স্টেশনের নাম বদলে স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের নামে স্টেশন করার ভাবনা কেন্দ্রের। শিয়ালদহ স্টেশনের নাম বদলে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় টার্মিনাস করার আর্জি ইতোমধ্যে রাষ্ট্রপতিকে জানিয়েছে রাজ্য বিজেপি। এদিকে শনিবার কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী তথা বিহারের বিজেপি নেতা নিত্যানন্দ রাই, স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের নামে বর্ধমান স্টেশনের নামকরণের সিদ্ধান্তের কথা জানান।

নিত্যানন্দ রাই বলেন, বটুকেশ্বর দত্ত আদতে বর্ধমানের ভূমিপুত্র হলেও স্বাধীনোত্তর ভারতে তাঁর স্থায়ী বসতি ছিল বিহারের পাটনায়। সেই কথা স্মরণ করে এবং স্বাধীনতা সংগ্রামীর অবদানকে স্বীকৃতি দিতেই পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান স্টেশনের নাম বদলে রাখা হবে বটুকেশ্বর দত্ত।

শনিবার স্বাধীনতা সংগ্রামীর মৃত্যুদিনে তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে জাক্কানপুরের বাড়িতে যান নিত্যানন্দ। সেখানে শিবরাজ সিং চৌহানের উপস্থিতিতে একথা জানান তিনি। উভয়েই দেখা করেন স্বাধীনতা সংগ্রামীর মেয়ে ভারতী বাগচীর সঙ্গে। প্রসঙ্গত, তিনিই বটুকেশ্বরের বংশের শেষ প্রতিনিধি। ১৯৬৫ সালে দিল্লির এইমস সংলগ্ন একটি বর্ধিষ্ণু এলাকায় শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বটুকেশ্বর। তাঁর মৃত্যুর পর ওই এলাকার নামকরণ করা হয় স্বাধীনতা সংগ্রামীর নামে।

১৯১০ সালে বর্ধমানের একটি প্রত্যন্ত গ্রামে জন্মেছিলেন এই স্বাধীনতা সংগ্রামী। পরাধীন দেশকে স্বাধীন করতে তিনি নাম লেখান বিপ্লবী দলে। যোগ দেন চন্দ্রশেখর আজাদের সংগঠন হিন্দুস্থান সোশ্যালিস্ট রিপাবলিকান অ্যাসোসিয়েশন-এ। পরে দিল্লিতে তিনি ভগৎ সিংয়ের সঙ্গে এক হয়ে জড়িয়ে পড়েন সশস্ত্র বিপ্লবে। বোমা বর্ষণ এবং বিদ্রোহী পত্রিকা চালানোর অভিযোগে ভগৎ সিংয়ের সঙ্গে জেল হয় তাঁর। পুলিশ কর্তাকে হত্যার অভিযোগে এরপর ফাঁসি হয় ভগৎ সিং-য়ের। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে আন্দামান-নিকোবরের সেলুলার জেলে দ্বীপান্তরিত করা হয় বটুকেশ্বর দত্তকে।