Friday, June 14, 2024
আন্তর্জাতিক

শাকিব আমাকে জোর করে ধর্মান্তরিত করেছে, বিস্ফোরক অপু বিশ্বাস

শাকিব খানের ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত মেনে নেবেন না তার স্ত্রী অপু বিশ্বাস। অপু বলেছেন, শাকিবের সিদ্ধান্ত মেনে নিতাম যদি একই ধর্মের হতাম। আমাকে ও জোর করে ধর্মান্তরিত করেছে, বিয়ে করেছে। তাই তার এই অমানবিক সিদ্ধান্ত কোনোভাবেই মেনে নেব না।

গত ২২ নভেম্বর চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে তালাকের কাগজ পাঠান তার স্বামী চিত্রনায়ক শাকিব খান। তবে ডিভোর্স লেটার হাতে না পাওয়ার কথা জানান অপু। অপু জানিয়েছেন, ”গত ২৮ নভেম্বর ছেলে আব্রাম খান জয়কে নিয়ে শাকিবের বাড়ি গিয়েছিলাম। সেখানে ছেলেকে রেখে বগুড়ায় গিয়েছিলাম। শাকিবের বাবা-মাকে বলেছি, আমি রোজা, নমাজ ও হজ করব। শাকিবের সঙ্গে সংসার করব। তাঁরাও আমার কথায় সম্মত হয়েছিলেন। এরপর কী এমন ঘটনা ঘটল যে সে আমাকে ডিভোর্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল!”

অপু বিশ্বাস

বাংলাদেশ প্রতিদিনকে অপু জানিয়েছেন, শাকিবের আপত্তির মুখে তিনবার অ্যাবরশন করাতে হয়েছে তাকে। জয় যখন গর্ভে আসে তখন অ্যাবরশন করানোর জন্য আমাকে ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে পাঠায় শাকিব। সেখানকার চিকিৎসক জানান, যেহেতু আগে তিনবার অ্যাবরশন হয়েছে আর নতুন করে কনসেপ্টের সময় ৪ মাস হয়েছে, সেহেতু অ্যাবরশন করানো ঝুঁকিপূর্ণ। এরপর শাকিব আমাকে কলকাতা পাঠায় অ্যাবরশন করানোর জন্য। সেখানকার চিকিৎসকরাও অ্যাবরশন করতে অস্বীকার করেন। তখন আমি সন্তান জন্মদানের সিদ্ধান্ত নেই। আর এতেই শাকিব আমার ওপর খেপে যায়। তার সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

গত ২২ নভেম্বর বিবাহবিচ্ছেদের নোটিসে তিনি স্বাক্ষর করেছেন বলে জানিয়েছেন শাকিব খান। তাঁর কথায়, ”আমি এখন শ্যুটিং নিয়ে ব্যস্ত আছি। এ বিষয়ে যা বলার আমার আইনজীবী বলবেন।”

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে অপু ও শাকিব একাধিক ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছেন। সেই সূত্রেই তাঁদের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। শাকিব-অপুর বিয়ের বয়স নয় বছর। তবে অপুকে বিয়ে করলেও দীর্ঘদিন আড়ালে রেখেছিলেন শাকিব। গতবছর ইদের আগে আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহের কথা স্বীকার করতে কার্যত বাধ্য হন শাকিব।