Monday, May 20, 2024
সম্পাদকীয়

বঙ্গাব্দ চালুর সময় বাংলায় আকবরের কোনও শাসন ছিল না

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: আকবরের রাজধানী দিল্লি, তিনি সেখানে কোন অব্দ চালু করেন নাই, দিল্লির পাশে পাঞ্জাব, উত্তর প্রদেশ, রাজস্থান, সেখানে কোন অব্দ চালু করেন নাই, মধ্যপ্রদেশ বা বিহারের কোন অব্দ চালু করলেন না। উত্তর ভারত, মধ্য ভারত, দক্ষিণ ভারত বাদ দিয়ে তিনি বঙ্গাব্দ চালু করলেন বাংলায়, যেখানে তার কোন শাসন ছিল না। ১৬০৮ সালের আগে বাংলা পুরোপুরি মোগল শাসনে আসেনি। আকবর মারা গিয়েছে ১৬০৫ সালে।

পহেলা বৈশাখ শুধু বাংলায় না, আসামে, নেপালে, পাহাড়ের বিভিন্ন উপজাতিরাও একই দিনে নববর্ষ পালন করে। নেপাল, আসাম আকবরের শাসনাধীনে ছিল না। বাংলার বার ভূইয়ারা কখনই মোগল শাসন কখনই মেনে নেয়নি। আকবরের জীবনী আইন ই আকবরীতে বঙ্গাব্দ চালু করার কথা লেখা নাই, আকবরের কোন জীবনীতেও বলা হয় নাই তিনি বঙ্গাব্দ চালু করেছিলেন। তিনি বাঙ্গালীও ছিলেন না, তার শাসনকাল ১৬৫৬-১৬০৫ পর্যন্ত। সিংহাসনে বসার দিন তারিখ গণনা করলে ২০২৪ সনে ৪৬৮ সাল হওয়ার কথা, হযরত মুহম্মদ এর হিজরত কাল ৬২২ সালে বঙ্গাব্দ চালুর দিন ধরলে বর্মানে ১৪০২ বঙ্গাব্দ হওয়ার কথা। অথচ বাংলা সন চলছে ১৪৩১। কোনভাবেই মেলে না। কেউ কেউ বাংলা আর হিজরী সনের মিশ্রনে এতটা গোজামিল তত্ব দাঁড় করান। কিন্তু তা বাস্তবতার সাথে মেলে না। আকবরের বহু আগে থেকে বঙ্গাব্দ চালু ছিল তার প্রমান কালিদাসের মহাভারতে ১০০২ বঙ্গাব্দ লেখা আছে, বাকুড়ার একটি শিব মন্দিরে প্রতিষ্ঠার তারিখ লেখা আছে ১০২ বঙ্গাব্দ। বৃন্দাবন চন্দ্র পুততুন্ড রচিত ” চন্দ্রদ্বীপের ইতিহাস ” বইতে ৬০৬ বঙ্গাব্দ লেখা আছে। বিজয় গুপ্তের পদ্মপুরান, ভারত চন্দ্র রায়গুনাকরের অন্নদা মঙ্গল সহ বিভিন্ন গ্রন্থে বৈশাখ মাসে বছর আরম্ভের কথা আছে।

বলা হচ্ছে আকবর খাজনা আদায়ের সুবিধার্থে বাংলা সন চালু করেছিলেন হিজরি ও ফসলী সনের সংমিশ্রণে। কিন্তু দিন তারিখ দেখে কেউ ফসল তোলে না, ফসল তোলার সময় হলেই তোলে। খাজনা আদায়ের সাথে সন গণনার কোন সম্পর্ক নাই। যখন ফসল উঠবে তখনই খাজনা নেবে। হিজরি হলো চন্দ্রমাস, বাংলা সৌর মাস, দুটির মিলনের কোন সম্ভবনা নাই। আকবর যদি হযরত মুহাম্মদ এর হিজরতকে স্মরনে রাখার চিন্তা করেন তো মাসগুলোর নামও আরবী রাখতেন তা কিন্তু হয়নি। অর্থাৎ আকবর বাংলা সন চালুই করেননি। তিনি চালু করেছিলেন তারিখ ই ইলাহী। কিন্তু তার প্রতিষ্ঠিত দ্বীন ই ইলাহীর মত সেটাও তার মৃত্যুর সাথে সাথে মারা যায়।

তাহলে কে বাংলা সন চালু করেছিলেন। তার একটাই উত্তর একটাই; তিনি হলেন বাংলার সার্বভৌম শাসক মহারাজা নরেন্দ্রাদিত্য শশাঙ্ক। যিনি ৫৯৩ খৃষ্টাব্দে সিংহাসন আরোহন করেছিলন। ইংরেজি ২০২৪ সাল থেকে বাংলা ১৪৩১ সন বাদ দিলে ৫৯৩ সাল হয়; যা কাঁটায় কাঁটায় মিলে যায়।

লিখেছেন: গোবিন্দ চন্দ্র প্রামাণিক