Saturday, June 15, 2024
রাজ্য​

দিল্লিতে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিলেন অভিষেক বন্দোপাধ্যায়

কলকাতা: পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে তৃণমূলের নিশানায় কেন্দ্র। শহরের বুকে প্রতিবাদ মিছিল শেষে প্রধানমন্ত্রী মোদীর সমালোচনায় সরব তৃণমূল নেতৃত্ব। সোমবার কেন্দ্রে জনবিরোধী সরকার চলেছে বলে অভিযোগ করেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, পেট্রোপণ্যের দাম না কমলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

কেন্দ্রের মোদী সরকারের জন বিরোধী নীতির বিরুদ্ধে বামেদের ডাকা ভারত বনধের ডাক দেওয়ার দিনই তৃণমূল নেতৃত্বের তরফে প্রতিবাদ মিছিলের ডাক দেওয়া হয়েছিল। বনধের জন্য কংগ্রেস ও বামদের কড়া সমালোচনা করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বনধ হল কর্মনাশা। রাজ্যে তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে কর্মদিবস নষ্ট হওয়ার সংখ্যা শূন্য।

এদিকে কেন্দ্র বিরোধী বনধ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিরোধীরা। যদিও মুখ্যমন্ত্রী এদিন বিকালে নবান্নে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, বনধের ইস্যুকে সমর্থন করলেও তৃণমূল নীতিগতভাবে বনধের বিপক্ষে।

মখ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে আর্থিক বিপর্যয় চলছে। বনধের ইস্যুকে সমর্থন করলেও তৃণমূল নীতিগতভাবে ধর্মঘটের বিরোধী। তাই এই বনধে তারা সামিল হয়নি। কয়েকদিন আগেই বনধের সমর্থনে কংগ্রেস নেতা আহমেদ প্যাটেল মমতাকে ফোন করলে এই বিষয়টি স্পষ্ট করেছিলেন তৃণমূল নেত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর মতে বনধ বিরোধীতার শেষ অস্ত্র হওয়া উচিৎ। এর ফলে আর্থিক ক্ষতি হয়।

এদিকে তৃণমূল নেত্রী মমতার এই অবস্থানের সমালোচনায় মুখর বামেরা। তাদের দাবি, তৃণমূলের অবস্থা এখন, “ধরি মাছ না ছুই পানি।”