Friday, June 14, 2024
Latestরাজ্য​

গত ৬বছরে ২৮৩০ পাকিস্তানি, ৯১২ আফগানি এবং ১৭২ বাংলাদেশিকে ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছে

কলকাতা: এনআরসি ও নতুন নাগরিকত্ব আইনের নিয়ে যখন গোটা দেশে আগুন জ্বলছে তখন বিজেপির তরফে রাজ্যবাসীকে আশ্বস্ত করতে পরপর কয়েকটি টুইট করা হয়েছে। টুইটে বলা হয়েছে, গত ৬বছরে ২৮৩০ জন পাকিস্তানি, ৯১২ আফগানি এবং ১৭২ বাংলাদেশি নাগরিককে ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে অনেকগুলি ওই দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ সম্প্রদায়ের।

রাজ্য বিজেপির তরফে করা ওই টুইটে আরও বলা হয়েছে, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) ভারতীয় নাগরিকদের জন্য প্রযোজ্য নয়। ভারতীয় নাগরিকরা এটি দ্বারা কোনোভাবে প্রভাবিত নয়। পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ৬সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিদেশীদের ধর্মীয় নির্যাতনের ভিত্তিতে নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এই সংশোধন প্রচলিত আইনে পরিবর্তন করে না। প্রচলিত আইন, যে কোনও বিদেশী রেজিস্ট্রিকরণ/প্রাকৃতিককরণের মাধ্যমে ভারতীয় নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারেন।

টুইটে বলা হয়েছে, ভারতের নাগরিকত্ব জন্ম, বংশদ্ভূত, রেজিস্ট্রিকরণ, প্রাকৃতিকীকরণ বা সংস্থা দ্বারা অধিগ্রহণ করা যেতে পারে। নাগরিক হওয়ার ক্ষেত্রে যে কোনও বিদেশী তার দেশ বা সম্প্রদায় নির্বিশেষে রেজিস্ট্রিকরণ বা প্রাকৃতিকীকরণের মাধ্যমে নাগরিকত্ব অর্জন করতে পারবেন।

টুইটে বলা হয়েছে, প্রতিবেশী দেশগুলির সংখ্যাগরিষ্ঠ সম্প্রদায়ের অভিবাসীরা রেজিস্ট্রিকরণ বা প্রাকৃতিকীকরণের জন্য আইনে ইতিমধ্যে প্রদত্ত যোগ্যতার শর্তাদি পূরণ করলে তাঁরা ভারতীয় নাগরিকত্ব লাভ করতে সক্ষম হবে। বিভিন্ন উপলক্ষ নিয়ে ভারতে পালিয়ে আসা বিদেশিদের নাগরিকত্বের ব্যবস্থা করতে অতীতে সরকার বিশেষ বিধান রেখেছিল। উদাহরণস্বরূপ – ১৯৬৪-২০০৮ সালে ৪.৬১ লাখ ভারতীয় বংশোদ্ভূত তামিলকে ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছে।

টুইটে বলা হয়েছে, সিএএ কোনও বিদেশি ধর্মীয় সম্প্রদায়কে টার্গেট করে না। যে সমস্ত অভিবাসী তথাকথিত “অবৈধ”, তাঁদের কিছু শর্ত পূরণ করে যদি ভারতীয় নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করার সুযোগ বঞ্চিত না হয় – সেই প্রক্রিয়া CAA। ৬ষ্ঠ তফসিলের আওতাধীন অঞ্চল এবং অভ্যন্তরীণ লাইন পারমিটের আওতাধীন অঞ্চলগুলি বাদ দিয়ে উত্তর পূর্বের আদিবাসী ও আদিবাসীদের স্বার্থ রক্ষা করে CAA সুতরাং, বিদেশি অভিবাসী দ্বারা দেশীয় জনসংখ্যাকে প্রভাবিত করার কোনো প্রশ্ন নেই।

ভারতীয় নাগরিককে অযথা হয়রানি বা অসুবিধায় না ফেলতে টুইটে আরও বলা হয়েছে, ভারতের নাগরিকত্ব প্রমাণিত হতে পারে জন্মের তারিখ বা জন্মের স্থান বা উভয় সম্পর্কিত কোনও দলিল দিয়ে। প্রচলিত নথির একটি তালিকা দেওয়া আছে যাতে কোনও ভারতীয় নাগরিককে অযাচিতভাবে হয়রানি বা অসুবিধায় না পড়তে হয়।