Sunday, June 23, 2024
আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশের খুলনায় মন্দির ভাঙচুর, হিন্দুদের বাড়িতে হামলা, ব্যাপক লুটপাট

খুলনা: ফের আক্রান্ত বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দুরা। গত ৭ আগস্ট বাংলাদেশের খুলনা জেলার রূপসা উপজেলার শিয়ালী গ্রামের মল্লিক পাড়া গ্রামে হিন্দুদের একাধিক মন্দিরে ভাঙচুর, হিন্দুদের বাড়িতে হামলা এবং ব্যাপক লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় ওই এলাকায় চাপা উত্তেজনা বিরাজ করেছে। এলাকা জুড়ে বিরাট সংখ্যায় পুলিশ এবং র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে।

ভাঙচুর ও সহিংসতার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এখনো পর্যন্ত মোট ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। স্থানীয়দের অভিযোগ, শতাধিক যুবক রামদা, চাপাতি, কুড়াল নিয়ে শিয়ালী গ্রামে হামলা চালায়। তারা বাজারের গণেশ মল্লিকের ওষুধের দোকান, শ্রীবাস মল্লিকের মুদি দোকান, সৌরভ মল্লিকের চা ও মুদি দোকান, অনির্বাণ চায়ের দোকান ও তাঁর বাবার দোকানে ভাঙচুর চালায়।

দুষ্কৃতীরা হিন্দুদের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক লুটপাট চালায়। শিবপদ ধরের বাড়ির গোবিন্দ মন্দির, শিয়ালী পূর্বপাড়া হরি মন্দির, শিয়ালী পূর্বপাড়া দুর্গা মন্দির ও শিয়ালী মহাশ্মশান মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর করে। ঘাটভোগ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাধন অধিকারী বলেন, পাশের চাঁদপুর গ্রামের যুবকরা এই ভাংচুরে অংশ নেয়। এভাবে মন্দির ও হিন্দুদের বাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা আগে কখনো ঘটেনি।

জানা গিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত হয় শুক্রবার। ওইদিন সন্ধ্যাবেলায় মসজিদে নামাজ পড়ার সময় হিন্দু সম্প্রদায়ের সদস্যরা ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করছিলেন। স্থানীয় মুসলিমরা তাদের বারণ করেন। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে বাদানুবাদ শুরু হয়। এর পরেই দলবেঁধে আক্রমণের এই ঘটনা ঘটে।