Monday, May 27, 2024
দেশ

পরের টাকায় নিজের নাম ফাটানো চলবে না, মোদীকে বার্তা মমতার

‘টাকা আমার, কিন্তু নাম তোমার।’ এই নীতিতে চললে রাজ্য সরকার তা হতে দেবে না। এই রকমই বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানিয়ে দিলেন পশ্চিমবঙ্গে কোনও ‘মোদীকেয়ার’ নয়। এবারের কেন্দ্রীয় বাজেটেই অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি ঘোষণা করেছেন ন্যাশনাল হেলথ প্রোটেকশন স্কিমের।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জে পি নাড্ডা জানিয়েছিলেন, এই প্রকল্পের মোট খরচের একটি অংশ রাজ্যকে বহন করতে হবে। কিন্তু মমতা জানিয়েছেন, রাজ্যের কষ্টার্জিত সম্পদ থেকে এই প্রকল্পের জন্য খরচ করতে পারবেন না। তিনি বলেন, ‘‘কেন্দ্র একটা স্বাস্থ্যবিমা প্রকল্প করেছে যাতে রাজ্যগুলিকে তহবিলের ৪০ শতাংশ দিতে হবে। কিন্তু রাজ্যের যখন নিজেরই প্রকল্প রয়েছে তখন অন্য একটি প্রকল্পের জন্য কেন খরচ করব? নিজের টাকা থাকলে নিজের স্কিমই করবে রাজ্য।’’

নীতি আয়োগের সিইও অমিতাভ কান্তের মতে, কেন্দ্রীয় সরকারের এই স্বাস্থ্য প্রকল্পের জন্য ৫,৫০০ থেকে ৬০০০ কোটি টাকা প্রতি বছরে খরচ হবে। কেন্দ্র আপাতত ২০০০ টাকা বরাদ্দ করেছে বাজেটে। বাকিটা রাজ্য সরকারগুলিকে বহন করতে হবে বলেই জানিয়েছে কেন্দ্র।

মমতা দাবি করেন, রাজ্য সরকার ইতিমধ্যেই বিনামূল্যে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছে। ‘‘যদিও কেন্দ্র সরকার প্রতি বছর ৪৮ হাজার কোটি টাকা নিয়ে যায়, কিন্তু তবু আমরা এটা করেছি। মুখ্যমন্ত্রীর বলেন, রাজ্যে ইতিমধ্যেই ৫০ লাখ লোক স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করেছেন। কেন্দ্রীয় সরকারের ‘বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও’ প্রকল্পে কম বরাদ্দ নিয়েও খোঁচা দেন মমতা। সারা দেশের জন্য এই প্রকল্পে ১০০ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় বাজেটে। কিন্তু কন্যাশ্রী প্রকল্পে রাজ্য ৮০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে বলে দাবি করেন তিনি।