Friday, June 14, 2024
দেশ

সীমান্তে চিনকে কড়া জবাব দিতে পর্বতযুদ্ধে দক্ষ সেনা মোতায়েন করল ভারত

নয়াদিল্লি: পূর্ব লাদাখের গালওয়ানে চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান নিহত হয়েছেন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভারত ও চিনের মধ্যে উত্তেজনা এখন চরমে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় চিনা আগ্রাসন রুখতে বিশেষ পাহাড়ি বাহিনী মোতায়েন করল ভারত। এই বিশেষ বাহিনীর জওয়ানরা প্রতিকূল পরিস্থিতিতে লড়াইয়ের ক্ষেত্রে বিশেষভাবে পারদর্শী।

প্রতিকূল পরিস্থিতিতে লড়াইয়ের জন্য গত কয়েক দশক ধরে বিশেষ বাহিনীর জওয়ানদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এবার তাঁদের চিন সীমান্তে পাঠানো হল, যাতে চিন ভারতীয় এলাকা দখলের চেষ্টা করলে পালটা কড়া জবাব দেওয়া যায়। চিনা সেনারা সাধারণত রাস্তা দিয়ে সাঁজোয়া গাড়ি নিয়ে এগোয়। আর ভারতের বিশেষ পাহাড়ি বাহিনী গেরিলা যুদ্ধে প্রশিক্ষিত এবং উচ্চ এলাকায় লড়াইয়ে পারদর্শী। যার ফলাফল ইতিমধ্যে কার্গিল যুদ্ধে মিলেছে।

এক প্রাক্তন ভারতীয় সেনাপ্রধান জানান, পাহাড়ে যুদ্ধ করা সবথেকে কঠিন। শতকের পর শতক ধরে উত্তরাখণ্ড, লাদাখ, গোর্খা, অরুণাচল প্রদেশ এবং সিকিমের জওয়ানরা পাহাড়ে যুদ্ধ করার ক্ষেত্রে অভ্যস্ত হয়ে উঠেছেন। তাই পাহাড়ে যুদ্ধ হলে তাঁদের দক্ষতার সঙ্গে পাল্লা দিতে পারবে না চিন। একেবারে নিখুঁতভাবে কামান এবং ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে পারবে এই বিশেষ বাহিনী।

উল্লেখ্য, ভারতের সঙ্গে চিনের ৩,৪৮৮ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। এই সীমান্ত বরাবর এবার থেকে পাহারা দেবে পর্বতযুদ্ধে দক্ষ এই  বিশেষ সেনাবাহিনী। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারও তিন বাহিনীর সেনাকে বলেছে, চিনের বাহিনী যদি কোনওভাবে ভারতীয় ভূখন্ডে প্রবেশের চেষ্টা করে, সঙ্গে সঙ্গেই যেন কড়া জবাব দেওয়া হয়।