Monday, May 20, 2024
দেশ

মোদীর বিপুল জনপ্রিয়তাতেই সেমিফাইনালে ৩-১, ফের প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন নমো, দাবি বিদেশি সংবাদমাধ্যমের

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: বছর ঘুরলেই লোকসভা ভোট। তার আগে ৪ রাজ্যের বিধানসভা ভোটকে সেমিফাইনাল হিসেবে দেখা হচ্ছিল। সেমিফাইনালে বিজেপির এই বিপুল জয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিদেশের তাবড় তাবড় সংবাদমাধ্যমগুলি। বেশিরভাগ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিজেপির এই বিপুল জয়ের কারণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জনপ্রিয়তা। 

পাশাপাশি বিদেশি সংমাধ্যমগুলোর আরও দাবি, এই জয় আসলে মোদীর প্রধানমন্ত্রী হবার হ্যাট্রিকের আভাস।

বিদেশি সংবাদমাধ্যমগুলির দাবি, বিধানসভা ভোটের সাফল্যকে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলে প্রভাব ফেলবে। প্রতিবেদনগুলিতে বলা হয়েছে, মোদীর জনপ্রিয়তা যে অটুট রয়েছে তা স্পষ্ট সদ্যসমাপ্ত বিধানসভা ভোটের ফলাফলে। অন্যদিকে, হিন্দি বলয়ে কংগ্রেসের হারের কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে পরিবারতন্ত্রকে।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রবিবার দাবি করেন, ‘বিধানসভার সাফল্য লোকসভা ভোটের ফলের আভাস। কেন্দ্রীয় সরকারের, তার সরকারের হ্যাট্রিকের গ্যারান্টি।’ একি দাবি করলো বিদেশি সংবাদমাধ্যমও। মোদী দাবি করেছিলেন, ‘এই বিধানসভা ভোটের ফলাফল বিদেশেও চর্চার বিষয়।’ মোদীর সেই কথা মিলেও গেল।

৪ রাজ্যের বিধানসভার ফল নিয়ে নিউইয়র্ক টাইমস অনেক বড় প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, ৩ রাজ্যের জয় বিজেপিকে লোকসভা ভোটের আগে হিন্দি বলয়ে অনেকটা এগিয়ে দিল। লেখা হয়েছে, নরেন্দ্র মোদী একদিকে হিন্দুদের আস্থা ও ভরসার প্রতীক, অন্যদিকে দেশের অস্থির আর্থিক অবস্থার মধ্যেও গরিবের কল্যাণে অনেক অনুদানের ব্যবস্থা করেছেন। গোটা দেশে তিনি জনপ্রিয়। অলিতে গলিতেও বিজেপি সমর্থকরা তার ছবি হাতে নিয়ে প্রচার করেন।

ব্লুমবার্গ লিখেছে, বিধানসভার এই নির্বাচন ছিল লোকসভা ভোটের মহড়া। সেক্ষেত্রে বিজেপি ও নরেন্দ্র মোদী অনেকটা এগিয়ে গেলেন। কংগ্রেস ভোট প্রচারে দ্রব্যমূল্যের মূল্য বৃদ্ধি, বেকারত্ব, জাতিগত সমীক্ষার মতো ইস্যুগুলিকে তুলে ধরেছিল, কিন্ত আদতে সেসব ধোপে টেকেনি।

বিশেষজ্ঞদের মতামত উল্লেখ করে ব্লুমবার্গ লিখেছে, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অত্যন্ত জনপ্রিয়। বিধানসভার ফল লোকসভা নির্বাচনে জয়ের প্রবণতা তৈরি করে দিল। বিজেপি খারাপ ফল করলে বিরোধীরা হয়তো পালে হাওয়া পেতো। কিন্তু ভোটের ফল বলছে, মোদীর তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়া নিশ্চিত।

সংবাদসংস্থা রয়টার্স লিখেছে, ক্ষমতায় থাকার পরেও নরেন্দ্র মোদীর জনপ্রিয়তা অতুলনীয়। তাকে মোকাবিলায় বিরোধীদের আঠাশটি দল মিলে ইন্ডিয়া জোট করেছে কিন্তু নিজেদের মধ্যে ঝামেলা থাকায় তারা ব্যর্থ।

সংবাদসংস্থা এএফপি লিখেছে, এই ৪ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের ফল গান্ধী পরিবারের জন্য বিপর্যয়। মোদীকে মোকাবিলা করতে নেমেছিলেন রাহুল গান্ধী। তিনি ব্যক্তিগত আক্রমণ করেছেন মোদীকে। কিন্তু তবুও কংগ্রেস বড় ধাক্কা খেয়েছে।

ফাইনান্সিয়াল টাইমস লিখেছে, বিধানসভা ভোটের ফল কংগ্রেসের জন্য বড় বিপর্যয়, যারা বহু দশক ভারতে শাসন করেছে। ২০১৪ এ নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরে বিপাকে পড়েছে কংগ্রেস।