Tuesday, June 18, 2024
দেশ

জঙ্গি অনুপ্রবেশে মদত দেওয়ায় ইদে পাক রেঞ্জার্সদের সঙ্গে মিষ্টি বিনিময় করল না বিএসএফ

শ্রীনগর: ইদ উপলক্ষে দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে ভারতের সীমান্ত রক্ষা বাহিনী (বিএসএফ) ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) একে অপরকে মিষ্টি উপহার দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টা বিজিবির বাসুদেবপুর ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার চাঁন মিয়া ও বিএসএফের হিলি কোম্পানি কমান্ডার ইন্সপেক্টর জগদিশ প্রসাদ একে অপরকে মিষ্টি উপহার দিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। তবে জঙ্গি অনুপ্রবেশে মদত দেওয়ায় পাকিস্তানের সীমান্ত রক্ষা বাহিনী রেঞ্জার্সদের ইদে মিষ্টি দিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করল না বিএসএফ৷

বিএসএফ সূত্রে এই খবর মিলেছে৷ জম্মু থেকে শুরু করে গুজরাট পর্যন্ত ভারত-পাক সীমান্তে কোনও জায়গাতেই এদিন দু’দেশের সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর মধ্যে মিষ্টি বিনিময় হয়নি বলে জানা গিয়েছে৷

বিএসএফয়ের এক আধিকারিক বলেছেন, কোনওভাবেই কাশ্মীরে জঙ্গি অনুপ্রবেশ কমছে না। জঙ্গি অনুপ্রবেশের জন্য পাকিস্তানের সীমান্ত রক্ষা বাহিনীই দায়ী৷ এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের প্রতি সৌজন্য দেখানোর কোনও প্রশ্নই ওঠে না৷ উল্লেখ্য, বিগত বছরগুলিতে অবশ্য ইদের অনুষ্ঠানে পাক সেনা এবং রেঞ্জার্সদের হাতে মিষ্টি তুলে দিয়েছে বিএসএফ৷ পাল্টা দিওয়ালিতে সীমান্তের ওপার থেকেও ভারতীয় জওয়ান এবং বিএসএফ-এর জন্য মিষ্টি এসেছে৷ কিন্তু এই বর্তমান পরিস্থিতিতে সেই সৌজন্য দেখালো না বিএসএফ৷

এদিকে, ইদে বাংলাদেশের সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর সঙ্গে মিষ্টি বিনিময় করেছে বিএসএফ জওয়ানরা৷ বিএসএফ-এর তরফে বলা হয়েছে, ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা বাহিনীর মধ্যে একাধিকবার সৌজন্যের নজির তৈরি হয়েছে৷ ইদ সহ বিভিন্ন উৎসবের আনন্দ ভাগ করে নেওয়া হয়েছে৷

বিজিবি হিলির বাসুদেবপুর কোম্পানি কমান্ডার চাঁন মিয়া বলেন, ইদ উপলক্ষে বিজিবির পক্ষ থেকে বিএসএফকে মিষ্টি উপহার দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। বিএসএফ’ও আমাদের মিষ্টি উপহার দিয়ে ইদের শুভেচ্ছা জানিয়েছে। সীমান্তে কর্তব্যরত দুই বাহিনীর মাঝে সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধ যেন বজায় থাকে এ লক্ষ্যে দু’দেশের বিভিন্ন জাতীয় ও ধর্মীয় উৎসবে আমরা একে অপরকে মিষ্টি উপহার দিয়ে থাকি। এ ধরনের রেওয়াজ এই সীমান্তে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে। এতে দু’বাহিনীর মাঝে বিরাজমান সুসম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে।