Sunday, June 23, 2024
রাজ্য​

উচ্চমাধ্যমিকে এত ফেল কেন? মহুয়া দাসকে জরুরি তলব করল নবান্ন

কলকাতা: করোনার কারণে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। বিকল্প পদ্ধতিতে মূল্যায়নের মাধ্যমে উচ্চ মাধ্যমিকের নম্বার দেওয়া হয়েছে। মাধ্যমিকেরও একই পদ্ধতিতে মূল্যায়ন করা হয়েছে। মাধ্যমিকে পাশের হার ১০০ শতাংশ। তবে উচ্চ মাধ্যমিকে পাশের হার ৯৭.৬৯ শতাংশ। রাজ্যের বেশ কয়েকটি স্কুলের পড়ুয়ারা অকৃতকার্য হয়েছেন। তাঁরা বিক্ষোভ দেখান স্কুলেও সামনে এমনকি পর্ষদের বাইরেও। যা নিয়ে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভানেত্রী মহুয়া দাসকে নবান্নে তলব করল মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী।

উচ্চ মাধ্যমিকের ফল প্রকাশের পর পড়ুয়ারা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান। কেন তাদের ফেল করানো হলো তা নিয়ে অসন্তোষ ছাত্রছাত্রীরা। রাস্তায় অবরোধ করে বিক্ষোভের সময় স্কুলের সামনে ফেল করা ছাত্র-ছাত্রীদের কান্নাকাটি করতেও দেখা যায়।

জানা গিয়েছে, উচ্চ মাধ্যমিকের সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের পর্ষদের নিয়ম অনুযায়ী নাম্বার দেয়া হয়েছে। যে ফর্মুলায় নম্বার দেওয়া হয়েছে সেগুলো সবই সমস্ত স্কুলকে পাঠানো হয়েছে। তারা সবকিছু বিবেচনা করেই নম্বার দেওয়া হয়েছে ছাত্রছাত্রীদের।

তবে দেখা গিয়েছে, অনেকেই ২০ থেকে ২৫ নম্বর কম পেয়েছে। কোনও কোনও স্কুলের ৫০ শতাংশের বেশি পড়ুয়া ফেল করেছে। কম নম্বর পাওয়ার ফলে কলেজে ভর্তি হওয়া সমস্যা দেখা দিতে পারে। পছন্দ মত অনার্সের বিষয় নিতে সমস্যা দেখা হতে পারে।

বিক্ষোভের ফলে অনেক বিদ্যালয় সংসদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং তারা ছাত্রছাত্রীকে আশ্বাস দিয়েছেন, পড়ুয়াদের ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে বিষয়টি সংসদ অভিহিত করবেন।