Monday, June 24, 2024
রাজ্য​

‘বিয়ের পড়ে পড়াশোনা করে কি হবে?’ উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী সুলতানাকে ঘরে আটকে রেখেছিল শ্বশুর বাড়ির লোকজন, পুলিশি তৎপরতায় পরীক্ষায় বসার বন্দোবস্ত

কলকাতা ট্রিবিউন ডেস্ক: বিয়ের পর আর পড়াশোনা করে কি লাভে হবে? এমনই আজব যুক্তি দেখিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা দিতে যেতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠলো তার স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। বাধ্য হয়ে পুলিশের দারস্থ হয় ওই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। পুলিশি তৎপরতায় পরীক্ষায় বসতে পেরেছেন ওই পরীক্ষার্থী।

জানা গেছে, ফারাক্কা থানার বিন্দুগ্রাম বাড়ি সুলতানা খাতুনের। ২০ বছর বয়সী সুলতানার বিয়ে হয় বান্টি শেখের সঙ্গে। সুলতানা খাতুন এবার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসেছে। প্রথম পরীক্ষাটি দিতে পারলেও ইংরেজি পরীক্ষার আগে আপত্তি জানায় তার স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন।

সুলতানা যাতে পরীক্ষায় বসতে না পারে তার জন্য লুকিয়ে রাখা হয় তার অ্যাডমিট কার্ড। এমনকি ঘরে তালা মেরে আটকে রাখা হয় তাকে। কোনওরকমে শ্বশুর বাড়ি থেকে পালিয়ে এসে, সোজা থানার হাজির ওই পরীক্ষার্থী। শেষ পর্যন্ত পুলিশি তৎপরতায় ইংরেজি পরীক্ষায় বসেছেন সুলতানা।