Thursday, June 13, 2024
দেশ

পরিত্যক্ত সদ্যোজাত শিশুকে স্তন্যপান করিয়ে জীবন বাঁচালেন মহিলা কনস্টেবল

বেঙ্গালুরু: গর্ভধারিণী মা জন্ম তাঁর সদ্যোজাত শিশুকে ঝোঁপের পাশে ফেলে যান, সেই পরিত্যক্ত নবজাতককে পরম মমতায় বুকে টেনে নিলেন বেঙ্গালুরু পুলিশের এক নারী কনস্টেবল। শিশুটিকে স্তন্যপান করিয়ে জীবন বাঁচালেন ওই পুলিশ কর্মী। এ ঘটনায় ওই মহিলা কনস্টেবলকে প্রশংসা করেছে তাঁর সহকর্মীরা।

জানা গিয়েছে, প্লাস্টিকের ব্যাগে মোড়া ছোট্ট শরীরটা খুঁজে পেয়েছিলেন এক কাগজ কুড়ুনি। ঠাণ্ডায় কুঁকড়ে যাওয়া, রক্তে মাখা ছোট্ট শরীরটাতে তখনও প্রাণ ধুকপুক করছিল। তখনই পাশের এক দোকানদারকে সব জানান ওই কাগজ কুড়ুনি। স্থানীয় ওই দোকানির কল পেয়ে বেঙ্গালুরু শহরের কাছে একটি নির্মাণাধীন ভবনের পাশের ঝোঁপ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে অর্চনা নামে এক মহিলা কনস্টেবলের তত্ত্বাবধানে শিশুটিকে রাখা হয়।

মাতৃত্বকালীন ছুটির পর সে দিনই কাজে যোগ দিয়েছেন অর্চনা। ছোট্ট শিশুটিকে দেখে নিজেকে আর সামলাতে পারেননি তিন মাসের শিশুর মা অর্চনা। বিবিসি-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অর্চনা বলেন, ‘’আমি এটা সহ্য করতে পারিনি। আমি অনুভব করেছি শিশুটির কান্না আমার সন্তানের মতো। এরপর আমি ওকে দুধ খাওয়াতে শুরু করি।’’ এরপর বাচ্চাটিকে কিনে দেয়া হয় নতুন জামাকাপড়ও। শুধু তাই নয়, ওই নবজাতকের নামকরণ হয় কর্নাটকের নতুন মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামীর নামে। শিশুটি এখন থেকে থাকবে সরকারেরই দেখভালে। শিশুটিকে ‘শিশু মন্দির’ নামে বেঙ্গালুরুর একটি শিশু সদন কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।


অর্চনার এই অবদানের কথা এখন সকলের মুখে মুখে। রাজ্য সরকারের তরফে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে তাঁকে। বেঙ্গালুরু পুলিশও ট্যুইট করে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছে অর্চনাকে।